25 C
Kolkata
Sunday, September 25, 2022
বাড়িদেশ বিদেশপাঞ্চশিরে আধিপত্য বিস্তারের জন্য মরিয়া লড়াই স্বসস্ত্র গোষ্ঠী তালিবানদের

পাঞ্চশিরে আধিপত্য বিস্তারের জন্য মরিয়া লড়াই স্বসস্ত্র গোষ্ঠী তালিবানদের

দীর্ঘ কিছুদিন ধরে লড়াই চলা উত্তর অঞ্চলিয়া পাঞ্চশির পুরোপুরি তালিবান (Taliban) নিয়ন্ত্রনে নেওয়ার দাবি করলেও সেখানকার প্রতিরোধ কারীরা বলেছেন ভিন্ন কথা , জাতীয় নৃশংসতা বলের দাবি তাঁরা পরাজিত হননি , লড়াই চলবে । টুইট করে একথাও বলছেন , প্রতিরোধ বাহিনীর প্রধান আহমেদ মাসুদ – ” পাকিস্থান সেনা ও আ.এস.আই তাঁদের পরিচালনা করছে , তালিবান আমাদের সঙ্গে লড়াই করার জন্য যথেষ্ট শক্তিশালী নয় কিন্তু পাকিস্থান সেনা তাঁদের সাহায্য করছেন “। অর্থাৎ আফগান অভ্যন্তরে যুদ্ধ এখনও বিরাজমান। পাঞ্চশিরে (Panjshir) পতাকা উড়িয়ে বিজয় ঘোষণা করেছে তালিবান। যার তীব্র নিন্দা করেছেন ইরান । হিন্দুকুশের কোলে আফগানিস্তানের ওই প্রদেশ সম্পূর্ণভাবে দখল হয়েছে বলে সরকারিভাবে দাবিও করেছে। তবে , নর্দার্ন অ্যালায়েন্স সে দাবি খারিজ করেছে ।

স্বসস্ত্র তালিবান সপ্রদায়ের এরূপ বিদ্রপ মনোভাব বর্তমান প্রজন্ম তথা আগামী প্রজন্মকে এক ভয়ংকর অন্ধকারাচ্ছন্ন সমাজ সম্মুখীন করে তুলছে । সেই প্রচেষ্টা থেকেই নিজের অবস্থান থেকে পিছু হটেনি তালিবরা। সোশাল মিডিয়ায় যে ছবি প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখা গেছে পাঞ্চশিরের গভর্নর কমাপাউন্ডের সামনে দাঁড়িয়ে বিজয়োল্লাসে তালিবানরা৷ এই অঞ্চলেই জাতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনী সম্মুখ সমর চলছিল তালিবানদের।

ইসলামিক এমিরেটস অফ আফগানিস্তানের (Afghanistan) তরফে তালিবান মুখপাত্র জবিউল্লা মুজাহিদ জানিয়েছেন, পাঞ্চশির দখল করে শেষ বিরোধী শক্তিকেও দখল করেছেন তাঁরা।

তালিবানদের দাবি খারিজ প্রতিরোধ বাহিনীর

১৫ অগাস্ট কাবুল দখলের পর, ধীরে ধীরে আফগানিস্তান দখল করতে পারলেও পাঞ্চশির আধিপত্য বিস্তার করতে পারেনি তালিবান। দুর্গম পার্বত্য উপত্যকায় লড়াই চালিয়ে যান আফগানিস্তানের প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি আমরুল্লাহ সালেহ , আহমেদ মাসুদ ও তাঁদের দলবল। পাঞ্চশির প্রদেশে তালিবানদের সঙ্গে যুদ্ধ জারি রাখে নর্দান অ্যালায়েন্স।

পাঞ্চশিরে আধিপত্য বিস্তারের লড়াই স্বসস্ত্র গোষ্ঠী তালিবানদের

সোমবার তালিবনের তরফে দাবি করা হয় পুরোপুরি পঞ্জশির উপত্যকার দখল নিয়েছে তারা। এছাড়াও পাঞ্চশিরের গভর্নরের বাসভবনেও তালিবানি পতাকা উড়তে দেখা যায়। প্রতিরোধ বাহিনীর অন্যতম নেতা আহমদ মাসুদের বাড়িরও দখল নেয় জেহাদিরা। সোস্যাল মিডিয়াতে একটি ছবিও খুবই দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়েছে। হিংস্র আক্রমণাত্বক এই সম্রপদায়ের দেশে ‘সম্পূর্ণত’ আধিপত্য বিস্তার ঘটলে খুব শীঘ্রই বর্তমান সমাজ তথা নব্য প্রজন্মের উন্নয়নের পতন ঘটবে ।

পাঞ্চশিরে (Panjshir) আধিপত্য বিস্তারের জন্য মরিয়া লড়াই স্বসস্ত্র গোষ্ঠী তালিবানদের

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: