25 C
Kolkata
Monday, October 3, 2022
বাড়িদেশ বিদেশবর্তমানে শ্রীলঙ্কার জ্বালানি ভাণ্ডার শূণ্য হয়ে গিয়েছে

বর্তমানে শ্রীলঙ্কার জ্বালানি ভাণ্ডার শূণ্য হয়ে গিয়েছে

বর্তমানে ভয়াবহ আর্থিক সংকট দেখা দিয়েছে শ্রীলঙ্কায়। অবস্থা এতটাই খারাপ মানুষ না খেতে পেয়ে মারা যাচ্ছে। জিনিসের দাম আকাশ ছোঁয়া। জ্বালানির ভাড়া প্রায় শুন্য। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল ভারত। শ্রীলঙ্কার এমন খারাপ পরিস্থিতিতে জ্বালানি পাঠানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ভারত। ১২০,০০ টন ডিজেল এবং ৪০,০০০ টন পেট্রোল শ্রীলঙ্কায় পাঠানোর কথা হয়েছে। ভারতের পাঠানো জ্বালানি তেলের থেকে শ্রীলঙ্কা ৫০০ মিলিয়ন ডলারের জ্বালানি আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে খরচ করতে পারে । সেই দেশে বিদ্যুতের ঘাটতি মেটাতেই এই জ্বালানি ব্যয় করা হবে বলে জানা যাচ্ছে। বর্তমানে শ্রীলঙ্কায় ১০ থেকে ১২ ঘন্টা লোডশেডিং করা হচ্ছে।

চলতি মাসের ১৫, ১৮ এবং ২৩ তারিখ শ্রীলঙ্কায় জ্বালানি পাঠানোর কথা আছে। গত বুধবার ভারত দুই দফায় ৩৬,০০০ টন পেট্রোল এবং ৪০,০০০ টন ডিজেল শ্রীলঙ্কায় পাঠিয়ে দিয়েছে।বর্তমানে শ্রীলঙ্কার জ্বালানি ভাণ্ডার শূণ্য হয়ে গিয়েছে।এই পরিস্থিতিতে ভারত জ্বালানি পাঠিয়ে শ্রীলঙ্কাকে একটু স্বস্তি দিলো। কিন্তু অনেকেই আশঙ্কা করছেন এর মধ্যে এই মাসের শেষে আবারও শ্রীলঙ্কার জ্বালানির ভাণ্ডার শূণ্য হয়ে যেতে পারে। কারণ ভারতের ক্রেডিট লাইন শেষ হতে যাচ্ছে। ভারত এক বিলিয়ন ডলার মূল্যের জ্বালানি, খাদ্য সামগ্রী এবং ওষুধ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। সেই মূল্যের সামগ্রী পাঠিয়ে দেওয়ার পরে ভারতের ক্রেডিট লাইন শেষ হয়ে গিয়েছে। তবে এই মাসের শেষে দুই তরফের আধিকারিকরাই ক্রেডিট লাইন বাড়ানোর জন্য দর করছেন।

যদি কথাবার্তা বিফলে যায় তাহলে শ্রীলঙ্কা পূর্ববর্তী ক্রেডিট লাইনই পুনরায় ব্যবহার করতে পারবে। এর ফলে আগে কেন জিনিসের মূল্য চোকানোর ব্যবস্থা করতে হবে। সম্প্রতি ভারত ২৭০,০০০ টন জ্বালানি শ্রীলঙ্কায় পাঠিয়ে দিয়েছে। শ্রীলঙ্কায় আর্থিক সংকটের ফলে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে সেখানে। রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে দেশের সাধারণ মানুষ। রাজাপক্ষ পরিবারের প্রশাসনিক আধিকারিকদের পদত্যাগের দাবিতে সরব হয়েছে দেশের মানুষ। ১৯৪৮ সালের স্বাধীনতার পর থেকে এই প্রথম চরম আর্থিক সংকটের মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা। এমন সংকটের ফলে রেকর্ড লেভেলে মুদ্রাস্ফীতি এবং দীর্ঘ ব্ল্যাকআউটের ফলে খাদ্য এবং জ্বালানির সরবরাহের অভাব দেখা গিয়েছে। এই সময় ভারতের সাহায্য অনেকটাই গুরুত্বপূর্ণ।

বর্তমানে শ্রীলঙ্কার জ্বালানি ভাণ্ডার শূণ্য হয়ে গিয়েছে

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: