25 C
Kolkata
Sunday, September 25, 2022
বাড়িপড়াশোনাবাংলার সরকারের নতুন প্রকল্প Student Credit Card -এর বিষয়ে কিছু বক্তব্য

বাংলার সরকারের নতুন প্রকল্প Student Credit Card -এর বিষয়ে কিছু বক্তব্য

নিজস্ব প্রতিবেদন- বর্তমানে রাজ্য সরকার রাজ্যের অভাবী ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের জন্য যে নতুন প্রকল্পটি চালু করেছে – সেটি হল Student Credit Card – প্রথমেই বলে রাখা ভালো এই প্রকল্পটি আমার ধারণা অনুযায়ী স্কুল/কলেজ লেভেলে প্রথাগত শিক্ষার ক্ষেত্রে হয়ত প্রযোজ্য নাও হতে পারে, কারিগরী শিক্ষা ও পেশাগত শিক্ষা (বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে) যে সকল ছাত্র/ছাত্রীরায় যুক্ত তারাই পাওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে – কারণ পরে উল্লেখ করছি। উক্ত ফর্মটি ফিলাপ করতে যে লিঙ্কে যেতে হবে সেটি লেখার নিচে দিলাম।

Student Credit Card : কেবল কয়েকটি জায়গায় খুব হিসাব করে ফিলাপ করতে হবে

ফর্মটি ফিলাপ করার আগে যে যে জিনিস হাতের কাছে রাখতে হবে – ছাত্র/ছাত্রী ও তার অভিভাবকের ছবি, সই, ব্যাঙ্ক ডিটেল ও প্রথম পাতার ফটোকপি, অভিভাবক এবং ছাত্র/ছাত্রীর প্যান কার্ড (ছাত্র-ছাত্রীদের প্যান কার্ড না থাকলে পোর্টাল থেকে একটি Declaration Download করে সেটি ছাত্র-ছাত্রীদের দ্বারা সহি করিয়ে আপলোড করতে হবে)। এছাড়া লাগবে যে Institution-এ Admission নিয়েছে সেই Institution-এর Admission Receipt এবং Total Course Fees সম্বলিত Brochure – যা রাজ্য সরকারী সংস্থা থেকে পাওয়া একটু সমস্যার – একটা উদাহরণ দিলে পরিষ্কার হবে – আমার কাছে একজন এসেছিল যে বেসরকারী সংস্থা থেকে BSC Nursing নিয়ে পড়াশুনা করছে কল্যানীর কোন একটি সংস্থা থেকে – সে এই সম্পূর্ণ কোর্স ফিস এর Brochure Institution থেকে পেয়েছে — কিন্তু অন্য একজন যে রাজ্য সরকারী সংস্থা থেকে JNM Nursing করছে তাকে কিন্তু সম্পূর্ণ কোর্সফিসের ডিটেল দিতে চাইছে না কেবল মাত্র বছর ভিত্তিক খরচের হিসাব দিচ্ছে।

ফর্মটি অতি সাধারণ – কেবল কয়েকটি জায়গায় খুব হিসাব করে ফিলাপ করতে হবে – যেমন

(১) স্টুডেন্ট প্যান কার্ড আছে কি না – যদি না থাকে তাহলে No Select করার সাথে সাথে একটি Declaration Download -এর অপশান দেবে – সেটি ডাউনলোড করে স্টুডেন্টকে দিয়ে ফিলাপ করিয়ে আপলোড করতে হবে।

(২) Institution থেকে কোন Brochure দিয়েছে কি না – সম্পূর্ণ কোর্স ফিসের – Yes করলে উক্ত Brochure Upload করতে হবে।

(৩) Admission Fees এর Receipt সঙ্গে রাখতে হবে – যেটি আপলোড করতে হবে।

(৪) সবথেকে ঝামেলার যেটি সেটি হল সম্পূর্ণ কোর্সের আনুমানিক খরচ – এক্ষেত্রে Brochure থাকলে সমস্যা কম – সেখানথেকেই হিসাব পাওয়া যায় – কিন্তু না থাকলে যদি কোন অর্থমূল্য লেখা হয় তার উপযুক্ত প্রমাণ Upload করতে হবে।

(৫) কত টাকা লোণের জন্য আবেদন করা হচ্ছে সেটিও লিখতে হবে – সেটাও অতি ঝামেলার – কারণ Brochure-এ Hostel খরচ ইত্যাদি লেখা থাকে না – সেটি আনুমানিক হিসাব করে কোর্স ফিসের সঙ্গে যুক্ত করে লিখতে হবে। আর একটি অতি ঝামেলার কাজ হল ডকুমেন্ট আপলোড করা – ছবি ও সই JPEG ফর্মাটে ২০+KB তে এবং বাকী ডকুমেন্ট PDF Format – 200-400KB Size-এ রেডি রাখতে হবে।

তবে একটা সুবিধা সহজে Automatic Time Out হয় না, যথেষ্ট সময়ে দেয়। ডকুমেন্ট রেডি রেখে কাজ করলে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। এতো গেল কীভাবে কাজ করা যাবে – এবার কারা পাবে – যতই বলুক ক্লাস ১০ থেকে তবে প্রথাগত শিক্ষার ক্ষেত্রে যে হবে না আগেই বলেছি – অনেক অভাবী ও মেধাবী ছাত্র/ছাত্রী আছে যারা ১০ পড়তে পড়তে বিভিন্ন কারিগরী শিক্ষায় শিক্ষিত হচ্ছে – আমার ধারণা প্রথাগত শিক্ষান্তে রাজ্যে বা দেশের বেকার সমস্যার সৃষ্টি যাতে না হয়, সেই কারনেই কারিগরী শিক্ষা বা পেশাগত শিক্ষার উপরেই সরকার জোর দিচ্ছে – যাতে তারা স্বাবলম্বী হয়ে উঠতে পারে। যাই হোক মোটামুটি Student Credit Card সম্পর্কিত আলোচনা – আর লিঙ্কটা হল https://wbscc.wb.gov.in/ এখানে পোর্টাল খুলে প্রথমে Student Registration করতে হবে। পরে ID- Password তৈরী হলে Login করে বাকী কাজ শেষ করতে হবে।

বাংলার সরকারের নতুন প্রকল্প Student Credit Card -এর বিষয়ে কিছু বক্তব্য

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: