25 C
Kolkata
Sunday, September 25, 2022
বাড়িপড়াশোনাশিক্ষকের অভাবে বন্ধ হয়ে গেল স্কুল

শিক্ষকের অভাবে বন্ধ হয়ে গেল স্কুল

স্কুলে সমস্ত পরিকাঠামো থাকলেও শিক্ষকের অভাবে বন্ধ স্কুল। স্কুলটিতে পড়ুয়াও আছে। কিন্তু নেই কোনও শিক্ষক-শিক্ষকা। শিক্ষক-শিক্ষকার অভাবে বন্ধ হয়ে গেল পাড়াশোনা। এই ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া (Bankura) জেলার ওন্দা ব্লকের অন্তর্গত অঙ্গদপুর জুনিয়র হাই স্কুলের। ২০১৫ সালে স্কুলটি প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। আর মাত্র ৭ বছরের মধ্যেই স্কুলটির এই হাল হয়েছে। জানা গিয়েছে, বিগত ৬ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে স্কুলটি। হঠাৎই ওই স্কুলে শিক্ষকেরা আসা বন্ধ করে দিয়েছেন। শিক্ষকের অভাবে বন্ধ হয়ে গেল ওই প্রত্যন্ত গ্রামের জুনিয়ার স্কুল। ওই গ্রামের ছেলে মেয়েদের পড়াশোনার জন্য আপাতত পার্শ্ববর্তী দুরের স্কুলই ভরসা।

ছাত্রছাত্রী থেকে অভিভাবকরা আবার কবে স্কুল খুলবে ক্লাস চালু হবে সেই অপেক্ষায় অপেক্ষারত। এই ঘটনায় জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক পীযুষ কান্তি বেরার বলেন, “এখন আমাদের শিক্ষকের অভাব হয়েছে গেস্ট টিচার নিয়োগ করে সমস্যা সমাধান করা হচ্ছে। আর ওন্দার এই অঙ্গদপুর জুনিয়র হাইস্কুল দু-বছর আগেই বন্ধ হয়ে গিয়েছে। যে দু-জন গেষ্ট টিচার ছিলেন তাঁরা অবসর নেওয়ার পর আর কোনও গেষ্ট টিচার না মেলায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যে সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীরা ওই স্কুলে পড়াশোনা করত তাঁদের পাশ্ববর্তী স্কুল ভর্তির ব্যবস্থা করা হয়েছে।” সূত্রের খবর, ওন্দা ব্লকের অঙ্গদপুর গ্রামে ২০১৫ সালে গড়ে উঠেছিল জুনিয়ার হাই স্কুল।

প্রথমের দিকে বেশ ভালোই শুরু হয়েছিল স্কুলটি। শুরুর সময় স্কুলটিতে দু-জন শিক্ষক ছিলেন। তাঁরা দুজনেই গেস্ট টিচার ছিলেন। ৭০ ছাত্রছাত্রীকে নিয়ে এই বিদ্যালয়ের পথ চলা শুরু হয়েছিল। প্রত্যন্ত গ্রামের ছাত্রছাত্রীদের কথা ভেবে দূরের স্কুলে যাতে পড়তে যেতে না হয় এবং গ্রামে শিক্ষা ব্যাবস্থার উন্নয়ন ঘটানোর কারণে এই জুনিয়ার স্কুলের পরিকাঠামো তৈরি করে শুরু হয় পঠন পাঠন। কোভিড পরিস্থিতির জন্য স্কুলটি আর পাঁচটা স্কুলের মতো বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু বর্তমানে সকল স্কুল খুলে গেলেও ওই স্কুলটি বন্ধ থেকে গেল। শিক্ষকের অভাবে বন্ধ হয়ে গেল ওই স্কুলের পঠন পাঠন। জানা গিয়েছে, গেস্ট টিচার পেলেই আবার স্কুলটি চালু করা হবে।

শিক্ষকের অভাবে বন্ধ হয়ে গেল স্কুল

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: