25 C
Kolkata
Monday, October 3, 2022
বাড়িদেশ বিদেশবেতন ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকারও বেশি,সম্প্রীতি যাদব

বেতন ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকারও বেশি,সম্প্রীতি যাদব

কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে’ এই কথাটি কম বেশি সকলেই আমরা শুনেছি৷ পথ যতই কঠিন হোক মনের সংকল্প দৃঢ় থাকলে সাফল্যে ঠিক মিলবে৷ নিজের উপর বিশ্বাস এবং কঠিন অধ্যবসায় থাকলে লক্ষ্যে একদিন ঠিক পৌঁছানো যায়। আবারও এই কথা প্রমান করে দিয়েছে বিহারের সম্প্রীতি যাদব৷ বর্তমান যুগে প্রতিযোগিতার বাজারে অনেক ছেলে মেয়ে আছে যারা প্রতিনিয়ত লড়াই করে যাচ্ছে। অনেকে আছে হাল ছেড়ে দিচ্ছে অনেকে আছে একভাবে লেগে থেকে সাফল্য পাচ্ছে। ঠিক এমনই ঘটে সম্প্রীতির সাথে। চাকরি যুদ্ধে বারবার ব্যর্থ হয় সে। কিন্তু হাল ছাড়েনি কখনই। এবং কঠিন লড়াইয়ের পর অবশেষে সাফল্য তার দোরগোড়ায় এসে দাঁড়িয়েছে।আর পাঁচটা ছেলেমেয়েদের মতো চাকরির পরীক্ষায় বসে সম্প্রতি। কিন্তু বারংবার হাতে আসে ব্যার্থতা। কিন্তু নিজের উপর দৃঢ় বিশ্বাসের জেরে আজ সম্প্রীতিই পেয়েছেন নিজের স্বপ্নের গুগলে চাকরি।

তবুও হাল না ছেড়ে নিজের লক্ষ্যে এগিয়ে গেছেন তিনি

এখন তাঁর বার্ষিক বেতন ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকারও বেশি। কিন্তু কেমন ভাবে সম্প্রীতি এই সাফল্য পেলেন ? ২০২১ সালে দিল্লি টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটি বি টেক স্নাতক উত্তীর্ণ হন তিনি। তারপর কমপক্ষে ৫৫টি চাকরির ইন্টারভিউতে দেন এবং সবকটিতেই ব্যর্থ হন। তবুও হাল না ছেড়ে নিজের লক্ষ্যে এগিয়ে গেছেন তিনি।সম্প্রীতির বাবা একজন স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার কর্মচারী এবং মা বিহার পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের সহকারী পরিচালক। সম্প্রীতি বলেন, ছোটবেলা থেকেই কাজের ক্ষেত্রে মা-বাবার সততার দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন তিনি। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রস্তুতিতে মায়ের কঠোর পরিশ্রমকে প্রতিনিয়তই প্রত্যক্ষ করেছিলেন সম্প্রীতি। বারংবার ব্যর্থ হওয়ার পরেও একদিন সফলতা আসবে এই ভেবে আরও কঠোর পরিশ্রম করেছেন।

আর এই কঠোর পরিশ্রমের ফলেই আজ এত বড় একটি কোম্পানি গুগলে চাকরি পান তিনি। যেখানে কাজ করা লক্ষ লক্ষ মানুষের স্বপ্ন।সম্প্রতি বলেন গুগলে চাকরি পেতে তাঁকে নয় রাউন্ডের সাক্ষাৎকার পাশ করতে হয়েছিল। তিনি বলেন, “অনেক সময় ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে খুব নার্ভাস লাগত। কিন্তু হাল ছাড়িনি। মনকে শক্ত রেখেছি৷ একইসঙ্গে পরিবার এবং বন্ধুবান্ধবদের পাশে পেয়েছি। তাদের ভরসা পেয়েই নার্ভাসনেস কাটিয়ে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে প্রতিটি ইন্টারভিউ দিতে পেরেছি।”তিনি আরও জানান, “যে কোনও সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের কাছেই গুগলের চাকরি যেন স্বপ্নের মতো। কারণ বিশ্বের সেরা টেক-ফার্ম গুগল। আমি দীর্ঘদিন ধরে বড় কোম্পানি নিয়ে পড়াশোনা করছি। গুগলের মতো একটি কোম্পানির লন্ডন অফিসে কাজ করার সুযোগ পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত।

” সম্প্রীতি সেই সকল মানুষের জন্য যেন জলজ্যান্ত উদাহরণ যারা ব্যর্থতার পর হল ছেড়ে ভুল পথ বেছে নেন এবং আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলেন। সম্প্রীতি সকলকে শিখিয়ে গেল লক্ষ্য স্থির থাকলে এবং নিজের উপর দৃঢ় বিশ্বাস থাকলে সাফল্য হাতের মুঠোয় আসবে। আজ সকলেরই তাকে দেখে শিক্ষা নেওয়া উচিত।

বেতন ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকারও বেশি,সম্প্রীতি যাদব

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: