25 C
Kolkata
Friday, February 3, 2023
বাড়িদেশ বিদেশ৮৫ বছরে পা দিলেন রতন টাটা, জেনে নিন তাঁর জীবনের অজানা কাহিনী

৮৫ বছরে পা দিলেন রতন টাটা, জেনে নিন তাঁর জীবনের অজানা কাহিনী

ভারতের জনপ্রিয় শিল্পপতিদের মধ্যে অন্যতম প্রখ্যাত একজন শিল্পপতি হলেন তিনি। যাকে এক ডাকে সকলেই চেনে। তাঁর সঙ্গে কাউর তুলনা হয় না। শিল্পজগতে দক্ষতার পাশাপাশি তিনি একজন সমাজসেবী এবং মানব দরদি মানুষ। তিনি হলেন জনপ্রিয় শিল্পপতি রতন টাটা (Ratan Tata)। আজ সেই মানুষটির জন্মদিন। চলুন জেনেনি সেই মানুষটির জীবনের কিছু অজানা কাহিনী। ১৯৩৭ সালের ২৮ ডিসেম্বর মুম্বাইতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন রতন টাটা। তাঁর মাত্র ১০ বছর বয়সে বাবা-মার বিচ্ছেদ হয়ে যায়। ছোটবেলা থেকে তিনি দিদার কাছে বড় হয়েছেন। মুম্বাইয়ের কেম্পিয়ন স্কুল থেকে রতন টাটার শিক্ষা জীবন শুরু হয়। পরবর্তী কালে ক্যাথেড্রাল অ্যান্ড জন কনন স্কুলে তাঁর স্কুল জীবনের শিক্ষা শেষ হয়।

স্কুল জীবনের শিক্ষা শেষ হওয়ার পর তিনি ১৯৬২ সালে কর্ণেল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্ট্রাকচার ইঞ্জিনিয়ারিং ও আর্কিটেচার বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন করেন। ১৯৭৫ সালে তিনি হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে বাণিজ্য ও অ্যাডভেঞ্চেড ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম এই বিষয়টিতে মাস্টার্স ডিগ্রী লাভ করেন রতন টাটা। টাটা গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা জামশেদজি টাটার (Jamsetji Tata) দত্তক নেওয়া নাতি হলেন রতন টাটা। জামসেদজি টাটার মৃত্যুর পর কোম্পানির দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি। তিনি হলেন টাটা গ্রুপের পঞ্চম চেয়ারম্যান। টাটা গ্রুপের ৬ জন চেয়ারম্যানের মধ্যে ২জন টাটা পরিবারের সদস্য নন। পড়াশোনা শেষ করার পর তিনি স্টিল কোম্পানিতে যোগদান করেন। তাঁর জীবনযাপন অত্যন্ত সাধারণ মানের। বর্তমানে এই জনপ্রিয় শিল্পপতির সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা।

দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে সাহায্য করেছিলেন রতন টাটা

দেশের বাকি শিল্পপতিদের সম্পতির তুলনায় তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ কম। করোনা মহামারীর সময় যখন দেশের অর্থনৈতিক মুখ থুবড়ে পড়ছিল, সেই সময় দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে সাহায্য করেছিলেন রতন টাটা। নিজের দেশকে ভালবেসে কিভাবে নিজেদের ব্যবসার সম্প্রসারণ ঘটাতে হয় তার উদাহরণ তিনি। টাটা গ্রুপের অধীনে কর্মরত কর্মচারীদের সঙ্গে তাঁর ব্যবহার বারংবার মুগ্ধ করে তলে। দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিদেশেও রতন টাটাকে সকলেই এক ডাকে চেনে। বিদেশেও তাঁর সুখ্যাতি ছড়িয়ে পড়েছে। দেশ তথা বিদেশের তরুণ প্রজন্মের কাছে তিনি একজন আদর্শ। এই শিল্পপতি দেশ এবং দেশবাসীর উন্নতির জন্য টাকা ইনভেস্ট করেন। টাটা গ্রুপের তরফে ভারতবর্ষের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, শিল্পকলা, সংস্কৃতির ভিন্ন ভিন্ন ক্ষেত্রে টাকা ডান করা হয়।

বহু সামাজিক কাজকর্মের সঙ্গে যুক্ত তিনি। ১৯৯৭ সালে সাধারণ মানুষ যাতে ১ লক্ষ টাকার বিনিময়ে একটি গাড়ি কেনার স্বপ্ন পূরণ করতে পারে সেই জন্য উদ্যোগী হয়েছিলেন তিনি। ২০০৮ সালে ১ লক্ষ টাকার বিনিময়ে বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা গাড়ি ‘টাটা ন্যানো’ (Tata Nano) গাড়িটি বাজারে আনেন। ২০০০ সালে ‘পদ্মভূষণ’ এবং ২০০৮-এ ‘পদ্মবিভূষণ’ সম্মানে সম্মানিত হয়েছিলেন রতন টাটা। এছাড়াও তাঁর ঝুলিতে বহু পুরষ্কার রয়েছে। বর্তমানে কোনও নতুন ব্যবসায়ী যদি ব্যবসার ব্যাপারে তাঁর পরামর্শ নিতে চান, তাহলে তিনি নিজে তাঁদের সঙ্গে কথা বলে নানা পরামর্শ দেন। আজ এই মহান ব্যক্তিত্বের মানুষটি ৮৫ বছরে পা দিলেন। জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাই রতন টাটাকে। তাঁর দীর্ঘায়ু কামনা করি।

৮৫ বছরে পা দিলেন রতন টাটা, জেনে নিন তাঁর জীবনের অজানা কাহিনী

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: