25 C
Kolkata
Monday, October 3, 2022
বাড়িরাজ্যআন্তর্জাতিক নারী দিবসে মহিলাদের সুরক্ষাই সবার আগে শাসক দলের কাছে

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে মহিলাদের সুরক্ষাই সবার আগে শাসক দলের কাছে

আজ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। নানান জায়গায় এই দিনটি বিশেষ ভাবে পালন করা হয়। এই উপলক্ষ্যে আজ রাজ্য সরকার মহিলাদের উন্নয়নে কি কি প্রকল্প গ্রহণ করেছে তা প্রদর্শন করা হবে রাজ্য জুড়ে। জানা যাচ্ছে, বেলপাহাড়ি থেকে বনগাঁ কোচবিহার থেকে কাকদ্বীপ, সবজায়গায় এই সমস্ত প্রকল্পের সুবিধা, ভূমিকা ও উদ্দেশ্যগুলি প্রচার করা হচ্ছে। প্রত্যেক বছর তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে আজকের দিনে নানান কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং এই কর্মসূচীগুলিতে যোগ দেন ।আজ এই কর্মসূচী থেকে মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন সরকার আরও একবার রাজ্যের মহিলা সুরক্ষা নিয়ে বার্তা দিচ্ছেন বলে জানা যাচ্ছে।গতবছর বিধানসভা ভোটের আগে অনেক বিজেপি নেতারা রাজ্যে প্রচারে আসেন। তারা এই রাজ্যের নারী সুরক্ষা নিয়ে রাজ্য সরকারকে তীব্র ভাষায় আলোচনা করেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও এর পাল্টা জবাব দেন।

নারী সুরক্ষা ও মহিলাদের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে রাস্তায় নামেন দুই দলই

তৃণমূল বারংবার বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে মহিলাদের সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে । তাদের বক্তব্যে উঠে আসছে উত্তরপ্রদেশের একাধিক জায়গায় একের পর এক নারী নির্যাতনের ঘটনাগুলি । যেভাবে প্রতিবাদ করলে অত্যাচারিত হচ্ছেন মহিলারা এবং অভিযোগ জানাতে গেলে খুন করা হচ্ছে তাদের সেটাই তাদের বক্তব্য। এই সমস্ত অভিযোগকে সামনে রেখেই প্রচারে জোর দিয়েছিল শাসকদল।2021-এও নারীদের অধিকার, সুরক্ষা নিয়ে রাস্তায় নেমেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি রান্না ঘরে আগুন লেগে যাওয়া নিয়ে রাস্তায় নেমে তীব্র ভাষায় সমালোচনা করেছিলেন বিজেপি সরকারের। অনেকের মতে গত বিধানসভা ভোটে মহিলা ভোট একটা বড় বিষয় ছিল । এই ভোট যে দিকে বেশি যাবে সেদিকেই পাল্লা ভারী থাকবে । ফলে নারী সুরক্ষা ও মহিলাদের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে রাস্তায় নামেন দুই দলই।

রাজনৈতিক মহলের মতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইউ এস পি হল তার প্রতি মহিলাদের গত কয়েক বছর ধরে অগাধ আস্থা । এবার লোকসভা ভোটের আগেও সেই আস্থাবধরে রাখতে জোর দিচ্ছে শাসকদল।সম্প্রতি রাজ্যে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্প অনেকটাই সাফল্য পেয়েছে। এর আগে কন্যাশ্রী ও সবুজ সাথীর মতো প্রকল্পও নজির সৃষ্টি করেছে। শুধু তাই নয় কলকাতা মহিলাদের জন্য সেফ সিটির তকমাও পেয়েছে। গত বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের স্লোগান ছিল, বাংলা নিজের মেয়েকেই চায় এবং সেটি মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে গেছিল। তৃণমূলের মহিলা সভানেত্রী কাকলি ঘোষ দস্তিদার বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুধু প্রকল্প ঘোষণা করে থেমে থাকেননি। এর সুবিধা যাতে সকলে পায় সেই কাজও করেছেন। এদিন বিভিন্ন প্রর্দশনীতে সেই ছবিই তুলে ধরা হয়েছে।” বলা বাহুল্য আসন্ন লোকসভা ভোটেও মহিলা ভোট একটা বড় ফ্যাক্টর হবে।

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে মহিলাদের সুরক্ষাই সবার আগে শাসক দলের কাছে

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: