25 C
Kolkata
Sunday, September 25, 2022
বাড়িদেশ বিদেশনেতাজির স্বাধীন ভারতে উন্নয়ন পরিকল্পনা করেছিলেন তা ভবিষ্যতে পূরণ হবে?

নেতাজির স্বাধীন ভারতে উন্নয়ন পরিকল্পনা করেছিলেন তা ভবিষ্যতে পূরণ হবে?

নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর নাম শোনেননি এমন মানুষ ভারতে কেন সারা বিশ্বে মেলা দায় । ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে তার কৃতিত্ব অনস্বীকার্য । তাকে ইংরেজ সরকার নানাভাবে দমানোর চেষ্টা করলেও তিনি আটকে থাকেননি নির্ভয়ে নিজের দেশের স্বাধীনতার জন্য কাজ করে গেছেন ।নেতাজি যখন জাতীয় কংগ্রেসের নেতা হন তখন অধিকাংশ নেতার মনে দেশে শিল্পায়নের বিষয়টি মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে । কারণ স্বাধীনতার পর দেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা হবে অর্থনৈতিক সমস্যা । আর এই সমস্যার সমাধানের জন্য একমাত্র উপায় হলো দেশে শিল্পের উন্নতি । তবে এটি কিভাবে সম্ভব হবে ? কিছু লোক কুটির শিল্পের উপর জোর দেওয়ার কথা বলেন এবং কিছুলোক পশ্চিমের শিল্পোন্নত শক্তির দিকে দেখে বড় আকারে শিল্পায়নের কথা বলেন ।জাতীয় কংগ্রেসের হরিপুরা অধিবেশনে (১৯৩৪ সাল) সুভাষচন্দ্র বসু তাঁর সভাপতির ভাষণে স্বাধীন ভারতের একটি পরিকল্পনা করেছিলেন । সেখানে বলা হয়েছিল , “স্বাধীন ভারত সরকারের প্রথম কাজ হলো ‘জাতীয় প্লানিং কমিশন ‘ গঠন করা ।”

১৯৩৪ সালের ২ অক্টোবর দিল্লিতে রাজ্যের শিল্প মন্ত্রীদের সম্মেলনে দেওয়া ভাষণে তার তৈরি জাতীয় পরিকল্পনার ধারণা তুলে ধরেন । নেতাজি 1938 সালে 17 ডিসেম্বর বোম্বেতে এই কমিটির উদ্বোধন করেছিলেন ।বিজ্ঞানী মেঘনাদ সাহাকে নেতাজি এই জাতীয় পুনর্গঠনের সমস্যাগুলি সম্পর্কে বলেন , “আমাদের যে সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে তা হল শিল্প পুনরুদ্ধার নয় বরং শিল্পায়ন ৷ ভারত এখনও রয়েছে প্রাক শিল্প পর্যায়ে ।যতক্ষণ আমরা একটি শিল্প বিপ্লবের পথ অতিক্রম করি ততক্ষণ পর্যন্ত কোনো শিল্প অগ্রগতি সম্ভব নয় । প্রথমেই নির্ধারণ করতে যে শিল্পায়ন , গ্রেট ব্রিটেনের মতোই ধীরে ধীরে হবে , নাকি সোভিয়েত রাশিয়ায় মতো সজোরে আসবে ৷”নেতাজি কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি শুধুমাত্র একটি শিল্প পরিকল্পনার কথা বলেন ম জাতীয় পরিকল্পনার ধারণায় দ্রুত শিল্পায়নের দরকারে পাশাপাশি দারিদ্র্য ও বেকারত্ব , জাতীয় নিরাপত্তা এবং জাতীয় পুনর্গঠনের ধারণা প্রবর্তন করেছিলেন । যার দ্বারা পরবর্তী ককলে দেশের উন্নতি সম্ভব । এই কমিটির প্রথম সভার স্থান হিসাবে বোম্বাইকে বেছে নেওয়া হয় ।

নেতাজির স্বাধীন ভারতের উন্নয়না যে পরিকল্পনা করেছিলেন তা ভবিষ্যতে পূরণ হবে

কারণ বোম্বে প্রদেশের তৎকালীন সরকার এই ঐতিহাসিক কমিটির কার্যকারিতার জন্য পরিকাঠামোগত সহায়তা করবেন বলে আসা করা হচ্ছিল ৷ জাতীয় পরিকল্পনা কমিটির প্রথম বৈঠকটি নেতাজি উদ্বোধন করেন এবং জওহরলাল নেহরু এর সভাপতিত্ব করেন । নেতাজি জওহরলাল নেহরুকে এই কমিটির চেয়ারম্যান করার সিদ্ধান্ত নেন। একটি চিঠিতে জওহরলাল নেহরুকে সভাপতিত্বের প্রস্তাব দিয়ে নেতাজি বলেন , “আমি আশা করি আপনি পরিকল্পনা কমিটির সভাপতিত্ব গ্রহণ করবেন। এটিকে সফল করতে হলে আপনাকে অবশ্যই থাকতে হবে।”নেতাজি এই পরিকল্পনাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে সরকার গঠনের কথা বলেন । প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে জাতীয় পরিকল্পনা কমিটি গঠন করা হয়েছিল । স্বাধীনতার প্রাক্কালে, 1946 সালের অক্টোবরে, অন্তর্বর্তী সরকার কর্তৃক জাতীয় পর্যায়ে একটি উপদেষ্টা পরিকল্পনা বোর্ড গঠন করা হয়, যার ফলে 1952 সালে পরিকল্পনা কমিশন গঠনের পথ পরিষ্কার করে দেয় । বর্তমানে 2014 সালে মোদী সরকার পরিকল্পনা কমিশন তুলে দেন এবং বদলে নীতি আয়োগ গঠন করা হয় ৷ অর্থাৎ বলা যেতেই পারে নেতাজির স্বাধীন ভারতের উন্নয়না যে পরিকল্পনা করেছিলেন তা ভবিষ্যতে পূরণ হবে ৷

নেতাজির স্বাধীন ভারতে উন্নয়ন পরিকল্পনা করেছিলেন তা ভবিষ্যতে পূরণ হবে?

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: