25 C
Kolkata
Tuesday, November 29, 2022
বাড়িদেশ বিদেশরাশিয়া থেকে অশোধিত তেল কিনলো ভারত! আমেরিকার বাঁকা চোখ ভারতের দিকে

রাশিয়া থেকে অশোধিত তেল কিনলো ভারত! আমেরিকার বাঁকা চোখ ভারতের দিকে

ভারতের পক্ষ থেকে পশ্চিমের দেশগুলোকে বার্তা দেয়া হলো, জ্বালানি আমদানি নিয়ে দিল্লি কোনো রাজনীতি চায়না। যখন সমস্ত দেশ মিলে রাশিয়াকে একঘরে করতে চাইছে, সেই সময় ভারত দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার মাধ্যমে খুব সস্তায় ৩০ লক্ষ ব্যারেল অশোধিত তেল কিনেছে রাশিয়ার কাছ থেকে। এই বিষয়টি ভালো চোখে দেখেনি আমেরিকা। তারা বলেছেন , ‘‘ভারতের আইনসঙ্গত ভাবে জ্বালানি কেনা নিয়ে রাজনীতি করা উচিত নয়। যে সব দেশ তেলের জোগানে স্বনির্ভর এবং যারা নিজেরাই এখনও রাশিয়া থেকে তা কিনছে, তারা আমদানিতে রাশ টানার পক্ষে যুক্তি দিলে তা বিশ্বাসযোগ্য হতে পারে না।’’ এই শিবিরের দাবি, ইশারা আমেরিকা এবং ইউরোপের দিকেই। আমেরিকা নিজেদের জ্বালানির প্রয়োজন নিজেরাই মেটাতে সক্ষম। আর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যেই মস্কো থেকে অশোধিত তেল আমদানি করছে ইউরোপের দেশগুলি।

প্রতিযোগিতার বাজারে ভারতের কাছে যে কোনও রফতানিকারী দেশ স্বাগত

সূত্রের দ্বারা খবর, প্রতিযোগিতার বাজারে ভারতের কাছে যে কোনও রফতানিকারী দেশ স্বাগত। এই পরিস্থিতিতে সব রকম সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ইরান এবং ভেনেজ়ুয়েলার উপরে নিষেধাজ্ঞার কথা উল্লেখ করে বিদেশ মন্ত্রক তরফে বলা হয়, ‘‘ভূকৌশলগত ঘটনা আমাদের জ্বালানি নিরাপত্তাকে মারাত্মক বিপদের মুখে ঠেলে দিয়েছে। খুব স্বাভাবিক কারণেই আমরা এখন আর ইরান এবং ভেনেজ়ুয়েলা থেকে তেল আমদানি করতে পারি না। বিকল্প উৎস খুঁজতে হচ্ছে বেশি দামে।’’ রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের পরে অশোধিত তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় বিপদ আরও বেড়েছে। যার ফলে অন্য রাস্তা খোঁজার জন্য চাপও বাড়ছে। নয়া দিল্লির তরফে বলা হয়, রাশিয়া থেকে তেল আমদানির পরিমাণ খুবই সামান্য। বিদেশ মন্ত্রক তরফে বলা হচ্ছে, ‘‘আমাদের মোট চাহিদার ১ শতাংশ তেলও রাশিয়া থেকে আসে না। আমাদের প্রথম দশটি তেল সরবরাহকারী দেশের মধ্যে নেই রাশিয়া। দুই দেশের সরকারের মধ্যে কোনও ব্যবস্থাও নেই এই বিষয়ে।’’

আরও বলা হচ্ছে, রাশিয়ার প্রাকৃতিক গ্যাস রফতানির ৭৫ শতাংশ যায় জার্মানি, ফ্রান্স, ইটালির মতো দেশে। নেদারল্যান্ডস, পোল্যান্ড, ফিনল্যান্ডের মতো দেশগুলিও বিপুল পরিমাণ তেল রাশিয়া থেকে আমদানি করে।ভারতের রাশিয়া থেকে সস্তায় তেল কেনার উদ্যোগ নিয়ে আমেরিকা বলে, এতে ভ্লাদিমির পুতিনের দেশের উপরে তাদের চাপানো আর্থিক নিষেধাজ্ঞার শর্ত ভাঙবে না ঠিকই। কিন্তু বিষয়টির অর্থ, ইউক্রেনে সামরিক হামলাকে সমর্থন করছে ভারত। যা ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে। এর জবাব দিতেই বিদেশ মন্ত্রক মুখ খোলে।এরইমধ্যে ভারতকে তেল রফতানির বার্তা দিয়েছে ইরান।ইরানের রাষ্ট্রদূত আলি চেগেনি বলেছেন, ‘‘আমাদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা নিয়ে সংশ্লিষ্ট দেশের সঙ্গে আলোচনা করা হচ্ছে। ফলে ভারতকে প্রয়োজন অনুযায়ী জ্বালানি সরবরাহ করতে তৈরি তেহরান।’’ ডোনাল্ড ট্রাম্প আমেরিকার প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন ইরানের পারমাণবিক চুক্তি লঙ্ঘনের অভিযোগে অনেক নিষেধাজ্ঞা জারি করে।এর আগে আগে ইরানই ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল সরবরাহকারী দেশ ছিল।

রাশিয়া থেকে অশোধিত তেল কিনলো ভারত! আমেরিকার বাঁকা চোখ ভারতের দিকে

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: