25 C
Kolkata
Wednesday, November 30, 2022
বাড়িরাজনীতিউপ-নির্বাচনে ঘাসফুলের (তৃণমূল কংগ্রেস) চারে চার, নাস্তানাবুদ বিজেপি সরকার

উপ-নির্বাচনে ঘাসফুলের (তৃণমূল কংগ্রেস) চারে চার, নাস্তানাবুদ বিজেপি সরকার

৩০শে অক্টোবর ছিল চারটি কেন্দ্রে উপ-নির্বাচন। গোসাবা, দিনহাটা, খড়দহ ও শান্তিপুর
খড়দহ বিধানসভা কেন্দ্রের উপ নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস বর্ষীয়াণ প্রার্থী তথা রাজ্যের কৃষি মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

দিনহাটা কেন্দ্রে রেকর্ড ভোটে জয়ী তৃণমূল কংগ্রেস

৯৩ হাজার ৮৩৮ ভোটে জয়ী হয়েছেন । তার সাথে সাথে  গোসাবা ও দিনহাটা কেন্দ্রে রেকর্ড ভোটে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী। দেড় লক্ষের কাছাকাছি ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন তারা । শান্তিপুর কেন্দ্রে  জয়ী হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ব্রজকিশোর গোস্বামী তিনি পেয়েছেন ভোট মোট ৬৪ হাজার ৪৩৬ ।

২রা নভেম্বর ছিল উপনির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা। এর মধ্যে অন্যমত গুরুত্বপূর্ণ ও নিঃসন্দেহে পাখির চোখ ছিল খড়দহ বিধানসভা। এখানে একুশের ভোটে জয়ী হয়েছিলেন কাজল সিনহা কিন্তু কোরোনায় তিনি প্রয়াত হন তাই খড়দহ কেন্দ্রে জয়ী হয়েও  বিধায়ক শূণ্য ছিল। এখানে রাজ্যের মন্ত্রী তৃণমূল কংগ্রেসের বর্ষীয়াণ নেতা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় প্রার্থী হন। তিনি  আবার, ভবানীপুরে একুশের ভোটে জয়ী হলেও পরে ইস্তফা দিয়েছেন। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপনির্বাচনে লড়বেন বলে তাঁকে সেই আসন ছেড়ে দেন।

অন্যদিকে একই রকম গুরুত্বপূর্ণ ছিল দিনহাটা ও শান্তিপুরের ফলাফলও। এই দুই আসনে একুশের ভোটে জয়ী হয় বিজেপি। তবে ভোটে লড়েছিলেন দুই সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক ও জগন্নাথ সরকার। পরে দল তাঁদের সাংসদ হিসাবেই রেখে দেয়। ফলে নতুন বিধায়কের প্রয়োজন পড়ে এই দুই কেন্দ্রে ।

ঠিক একই ভাবে  একুশের ভোটে গোসাবা কেন্দ্রটি তৃণমূল জেতে। ঘাসফুলের প্রার্থী হয়েছিলেন জয়ন্ত নস্কর। তবে ভোটের পর করোনা আক্রান্ত হয়ে এই প্রবীণ নেতার মৃত্যু হয়। তাই এই আসনে উপনির্বাচন হয়। এই চারটি কেন্দ্রেই জয়ী হল তৃণমূলকংগ্রেস। গোসাবায় সুব্রত মণ্ডল, দিনহাটায় উদয়ন গুহ, খড়দহে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় এবং শান্তিপুরে ব্রজকিশোর গোস্বামী।

ফল প্রকাশের পর তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটে অভিনন্দন জানান চার প্রার্থীকে। তিনি লিখেছেন, এটা মানুষের জয়। এই জয় বুঝিয়ে দিচ্ছে কী ভাবে বাংলার মানুষ ষড়যন্ত্র আর ঘৃণার রাজনীতিকে উপেক্ষা করে উন্নয়ন আর ঐক্যকেই বেছে নিয়েছেন।

তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

এদিন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বিরোধীদের কটাক্ষ করে টুইটে বিজেপিকে দিপাবলীর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘সত্যিকারের বাজি-হীন দিপাবলী।’

উপ-নির্বাচনে ঘাসফুলের চারে চার, নাস্তানাবুদ বিজেপি সরকার

মমতা ব্যানার্জি

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: