25 C
Kolkata
Tuesday, November 29, 2022
বাড়িরাজনীতিবাংলাকে শিল্প মুক্ত করেছেন উনি, ইতিহাসে নাম থাকবে" মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ দিলীপের

বাংলাকে শিল্প মুক্ত করেছেন উনি, ইতিহাসে নাম থাকবে” মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ দিলীপের

বুধবার শিলিগুড়িতে বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) রাজ্যের শিল্প প্রসঙ্গে বলেন, সিঙ্গুর থেকে টাটাদের (Tata Motors) তাড়িয়েছে সিপিএম। এদিন মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যের পর থেকে শুরু হয় রাজনৈতিক তরজা। মুখ্যমন্ত্রীর এদিনের মন্তব্যের পাল্টা কটাক্ষ করেছেন বিজেপির (BJP) সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তিনি বলেন, “এর থেকে ভাল জোকস আর হয় না। জীবনে যত ভালো জোকস বলেছেন তার থেকে সবথেকে ভালো জোকস হচ্ছে এইটা। লোক দেখেছে উনি ধর্না মঞ্চে বসে কী করেছিলেন। বিরিয়ানি খেয়ে ধর্না দিয়েছিলেন, অনশন করেছিলেন। সে নাটক সবাই জানে। এখন এসব বলে প্রায়শ্চিত্ত হবে না। বাংলা কে শিল্প মুক্ত করেছেন উনি। এই কৃতিত্বটা ওঁর। ইতিহাসে নাম থেকে যাবে।” উল্লেখ্য, বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আপনারা লোকের জমি জোর করে দখল করতে গেছিলেন।

আমরা জমি ফেরত দিয়েছি। জায়গার তো অভাব নেই, আমি জোর করে কেন জমি নেব? আমরা এত প্রোজেক্ট করেছি, জোর করে তো জমি নেইনি। কেউ কেউ বাজে কথা বলে বেড়াচ্ছে, আমি টাটাকে তাড়িয়ে দিয়েছি, টাটা চাকরি দিচ্ছে, আরে টাটাকে আমি তাড়াইনি। সিপিএম তাড়িয়েছে।” প্রসঙ্গত, “পর্যটনশিল্পে বিশ্বকে পথ দেখাবে বাংলা” মুখ্যমন্ত্রীর করা এই মন্তব্য প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা বলেন, ”পশ্চিমবঙ্গে এত পর্যটনের জায়গা আছে যদি সেটা একটু ঠিকঠাক সাজানো যেত, থাকার ব্যবস্থা, রাস্তাঘাটের ব্যবস্থা করা যেত তাহলে বাঙালি এত বাইরে বাইরে ছুটত না। সারা উত্তরবঙ্গ জুড়ে আমাদের পর্যটনের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আছে। ডুয়ার্স পাহাড়, দক্ষিণ বাংলায় বিষ্ণুপুর, এদিকে এত জায়গা মুর্শিদাবাদে ঐতিহাসিক জায়গা, একটুখানি পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন করে সাজিয়ে দিলে থাকার ব্যবস্থা করলে, যোগাযোগের ব্যবস্থা করলে এবং ওয়েবসাইটে ডিটেলস দিয়ে দিলে হাজার হাজার টুরিস্ট যেতো। বাংলার লাভ হত। সেটা তারা করেননি, করার ইচ্ছাও নেই।”

বাংলায় যেসব টাকা পয়সা রয়েছে বেশিরভাগই অনৈতিক

অন্যদিকে, রাজ্যে একাধিক ইস্যুতে মহানগরীর বুকে বিক্ষোভ চলছে। ২০১৪ টেস্ট উত্তীর্ণ চাকরিপ্রার্থীরা চাকরির দাবিতে বিক্ষোভ করছেন। এদিন সেই প্রসঙ্গেই দিলীপ ঘোষ বলেন, “যত অনৈতিক কাজ পশ্চিমবঙ্গে হচ্ছে। কারও কোনও ভয়ডর নেই। এখানে চুরি করতে তাই সারা দেশ থেকে লোকেরা আসছে বাংলায়। বাংলায় যেসব টাকা পয়সা রয়েছে বেশিরভাগই অনৈতিক। চাকরিবাকরি কোনও কিছু নেই। এই আন্দোলনে যারা নিজের অধিকারের জন্য নিজের প্রাণকে বাজিয়ে রেখেছে তাদেরকে বলছে অনৈতিক। তাদেরকে দেবে নীতি-নৈতিকতা বোঝাচ্ছে। সরকার কতটা নীতির কাজ করছে কোর্টে গিয়ে সব জায়গায় কানমোলা খাচ্ছে। যারা জীবনের শেষ প্রান্তে বয়স পার হয়ে যাচ্ছে সরকারি চাকরির, সেখানে বাধ্য হয়ে অনশন করছেন তারা। কীসের আশ্বাসে অনশন তুলে নেবে সরকার? মিডিয়াতে বললে হবে না তাদের সামনে এসে বলা উচিত।”

বাংলাকে শিল্প মুক্ত করেছেন উনি, ইতিহাসে নাম থাকবে” মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ দিলীপের

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: