25 C
Kolkata
Monday, December 5, 2022
বাড়িরাজ্যকলকাতাএই ধরনের প্রতারকরা সন্ত্রাসবাদীদের থেকেও ভয়ঙ্কর : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এই ধরনের প্রতারকরা সন্ত্রাসবাদীদের থেকেও ভয়ঙ্কর : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিবেদন- ‘এই ধরনের প্রতারকরা সন্ত্রাসবাদীদের থেকেও ভয়ঙ্কর।’ সোমবার নবান্নে এক সাংবাদিক সম্মেলনে জাল ভ্যাকসিন কাণ্ডে কসবায় ধৃত দেবাঞ্জন দেব সম্পর্কে এমনই মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) । পুরসভা ও প্রশাসনও তাঁর ক্ষোভের আঁচ থেকে রক্ষা পায়নি। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, ‘এই ঘটনায় পুলিস ও পুরসভা কোনওভাবেই তাদের দায়িত্ব এড়াতে পারে না। প্রশাসনের তরফে আরও নজরদারি প্রয়োজন ছিল।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় : আমি পুলিস কমিশনারকে ফোন করে কড়া ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছি

তবে, পরক্ষণে আশ্বাসের সুরও ছিল মুখ্যমন্ত্রীর গলায়। রাজ্যবাসীকে আশ্বস্ত করে তিনি বলেন, ‘আমি পুলিস কমিশনারকে ফোন করে কড়া ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছি। ইতিমধ্যে সিট গঠন করা হয়েছে। এই শিবিরগুলি থেকে যারা ভ্যাকসিন নিয়েছেন তাঁদের সকলের স্বাস্থ্যের প্রতি নজর রাখা হচ্ছে।’

এহেন প্রতারণার ঘটনা প্রকাশ্যে আনার জন্য অভিনেত্রী তথা দলীয় এমপি মিমি চক্রবর্তীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেছেন, ‘ওর জন্যই সব জানা গেল। ওর গল ব্লাডারের সমস্যা রয়েছে। আমি ওর সঙ্গে কথাও বলেছি।’
এদিকে, জাল ভ্যাকসিনকাণ্ডে গোয়েন্দাদের তদন্ত যতই এগচ্ছে, ততই দেবাঞ্জনের নতুন নতুন কেলেঙ্কারি সামনে আসছে।

লালবাজার সূত্রে খবর, বাগরি মার্কেট থেকে ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকার মাস্ক-স্যানিটাইজার কিনে দাম না মেটানোর অভিযোগে হেয়ার স্ট্রিট থানায় ধৃত দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে নতুন করে একটি প্রতারণা মামলা দায়ের হয়েছে। এই ঘটনার তদন্তে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন, কলকাতা পুরসভার যুগ্ম কমিশনার সেজে কলকাতা শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়েছে এই ভুয়ো আইএএস অফিসার। এমনকী, পুরসভার নাম ভাঁড়িয়ে চালানো সেই অভিযানের কথা একটি বাংলা দৈনিক সংবাদপত্রে ফলাও করে প্রকাশিত হয়।

গত বছর মার্চ মাসে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার চেষ্টার অভিযোগে দেবাঞ্জনকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল বিধাননগর ইলেক্ট্রনিক কমপ্লেক্স থানার আধিকারিকরা। কিন্তু, তাকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। সেই সময় দেবাঞ্জনের বাবা-মা জানতে পারেন, তাদের ছেলে আইএএস অফিসার নয়।

গত রবিবার দেবাঞ্জনের মাদুরদহের বাড়িতে তল্লাশি চালায় গোয়েন্দাদের একটি দল। সেখান থেকে ব্যাঙ্কের পাসবই, তিনটি ডেবিট কার্ড, রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের জাল নথি, সিল বাজেয়াপ্ত করা হয়। লালবাজার জানতে পেরেছে, পুরসভার কর্তা তথা আইএএস পরিচয়ে গত বছর সেপ্টেম্বর–অক্টোবর মাসে অশোক রায়ের কাছ থেকে মাসিক ৬৫ হাজার টাকা ভাড়ায় তিন বছরের চুক্তিতে অফিস ভাড়া নিয়েছিল দেবাঞ্জন। এই অফিসই পুরসভার অফিস হিসেবে এলাকায় পরিচিতি লাভ করে।

লালবাজারের নজরে দেবাঞ্জনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট

সোমবার দুপুরে দেবাঞ্জনের ভুয়ো সংস্থার বর্তমান ও প্রাক্তন কর্মী মিলিয়ে মোট ১২ জনকে লালবাজারে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সেখানে কয়েকজন জানিয়েছেন, চাকরি পেতে দেবাঞ্জনকে টাকা দিতে হয়েছিল। লালবাজারের ব্যাঙ্ক জালিয়াতি দমন শাখার গোয়েন্দারা দেবাঞ্জনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ঘেঁটে জানতে পেরেছেন, গত এক বছরে সেখান থেকে ২ কোটির বেশি টাকা লেনদেন হয়েছে। জাল নথি পেশ করে একটি বেসরকারি ব্যাঙ্ক থেকে ২০ লাখ টাকা লোন নিয়েছে সে।

এদিকে, জাল ভ্যাকসিনকাণ্ডের প্রতিবাদে এদিন সকাল দশটা নাগাদ সল্টলেকে স্বাস্থ্যভবনে বিক্ষোভ দেখান একদল সিপিএম কর্মী-সমর্থক। ঘটনাস্থল থেকে ৬০ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। বাম ছাত্র-যুবদের নেতৃত্বে কলকাতা পুরসভার সামনে এদিন বিক্ষোভ দেখানো হয়। বারাকপুর এসডিও অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন বাম কর্মী-সমর্থকরা।

এই ধরনের প্রতারকরা সন্ত্রাসবাদীদের থেকেও ভয়ঙ্কর : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: