25 C
Kolkata
Monday, December 5, 2022
বাড়িখেলাক্রিকেটসামনেই রয়েছে ইংল্যান্ড-এর বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ

সামনেই রয়েছে ইংল্যান্ড-এর বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ

নিজস্ব প্রতিবেদন- বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে প্রবল চাপে টিম ইন্ডিয়া। প্রায় সাড়ে তিন মাসের ইংল্যান্ড সফরের শুরুতেই এই ধাক্কা কীভাবে সামলে ওঠা যায়, সেই পথ খুঁজতে ব্যস্ত ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। কারণ, সামনেই রয়েছে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

নটিংহ্যামে প্রথম ম্যাচ শুরু ৪ আগস্ট। ভুল শুধরে নেওয়ার অনেকটা সময় রয়েছে কোহলিদের হাতে। কিন্তু প্রথমে ঠিক হয়েছিল, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের পর ক্রিকেটাররা পরিবারের সঙ্গে নিজেদের মতো করে বিলেতে ঘুরবেন। প্রায় চার সপ্তাহ ছুটি পাওয়ার কথা ছিল পূজারাদের। কিন্তু খেতাবি লড়াইয়ে নিউজিল্যান্ডের কাছে বিশ্রী হারের পর সেই পরিকল্পনা অনেকটাই বদলে গিয়েছে।

ভারত বনাম ইংল্যান্ড : লন্ডনের বাইরে কোথাও যাওয়া যাবে না

ক্রিকেটারদের বলা হয়েছে, লন্ডনের বাইরে কোথাও যাওয়া যাবে না। যে যেখানেই থাকুক, ১৪ জুলাই টিম হোটেলে প্রত্যেক সদস্যকে রিপোর্ট করতে হবে। তারপর ভারতীয় দল যাবে ডারহ্যাম। সেখানে থাকতে হবে জৈব সুরক্ষা বলয়ে। ওই পর্ব শেষ হলে ইংল্যান্ড সিরিজের প্রস্তুতি শুরু হবে।

ভারতীয় বোর্ড চাইছিল, অ্যান্ডারসন, ব্রডদের মুখোমুখি হওয়ার আগে কোহলি, পূজারারা কোনও কাউন্টি ক্লাবের বিরুদ্ধে দু’টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলুক। সেই মতো বোর্ড সচিব জয় শাহ ফোনে ইসিবি’র শীর্ষ কর্তাকে অনুরোধ করেন। কিন্তু বিসিসিআইয়ের অনুরোধ রাখতে পারেনি ইসিবি। বলা হয়েছে, কাউন্টি ক্লাবের ক্রিকেটাররা জৈব সুরক্ষা বলয়ে নেই।

তাই ভারতীয় দলের জন্য প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজন করা সম্ভব নয়। অগত্যা নিজেদের মধ্যেই প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে হবে বিরাট কোহলিদের। বোর্ড সূত্রে জানা গিয়েছে, দু’টি প্র্যাকটিস ম্যাচই হবে ডারহ্যামে। যেমনটা কোহলিরা খেলেছিলেন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের আগে। কিন্তু তাতে যে খুব একটা লাভ হয় না, সেটা প্রমাণ হয়ে গিয়েছে।

এদিকে, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের ব্যর্থতা নিয়ে ময়নাতদন্ত চায় বোর্ডের একাংশ। তবে এখনই কোনও কড়া পদক্ষেপ গ্রহণে রাজি নয় বিসিসিআইয়ের শীর্ষ কর্তারা। তাঁদের যুক্তি, ক্রিকেটাররা এমনিতেই চাপে। তার উপর সামনে রয়েছে একাধিক ম্যাচ। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের পর কোহলিরা আইপিএল খেলবেন। তারপর দেশের মাটিতে টি-২০ বিশ্বকাপ রয়েছে। তাই দেশে ফেরার পর ক্যাপ্টেন ও কোচের রিপোর্ট নিয়ে যাবতীয় পর্যালোচনা হবে।

ভারতীয় দলে মোট ২৪ জন ক্রিকেটার রয়েছেন। কিন্তু ডব্লুটিসি ফাইনালে দল ঘোষণা হওয়ার পর লোকেশ রাহুল, অক্ষর প্যাটেলদের জৈব সুরক্ষা বলয় থেকে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তাঁরা নিজেদের মতো করে বিলেতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন প্রাক্তন ক্রিকেটাররা। তাঁদের বক্তব্য, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ টেস্ট সিরিজের কথা মাথায় রেখে এই সকল ক্রিকেটারদের ছুটি না দিয়ে প্র্যাকটিস করতে বলা উচিত ছিল। প্রাক্তন ক্রিকেটার দিলীপ বেঙ্গসকরের মতে, প্রায় এক মাস কোনও খেলা নেই। তাই ভারতীয় দলকে দেশে ফিরিয়ে আনা উচিত ছিল।

সামনেই রয়েছে ইংল্যান্ড-এর বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ:

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: