25 C
Kolkata
Thursday, December 1, 2022
বাড়িরাজ্যজেলামৎস্যজীবীদের জাল থেকে ডায়মন্ড হারবারে তলিয়ে যাওয়া শিশুদের দেহ উদ্ধার

মৎস্যজীবীদের জাল থেকে ডায়মন্ড হারবারে তলিয়ে যাওয়া শিশুদের দেহ উদ্ধার

রবিবার সন্ধ্যায় ডায়মন্ড হারবার (Diamond Harbour) জেটি ঘাট থেকে তলিয়ে যাওয়া দুই বোনের দেহ পাওয়া গেল। হুগলি নদীতে তলিয়ে যাওয়ার পর থেকে তল্লাশি অভিযান শুরু হওয়ার পর মঙ্গলবার দুই বোনের দেহ পাওয়া গেল। প্রায় ৪৫ ঘণ্টা পর পূর্ব মেদিনীপুরের সুতাহাটা এলাকায় হলদি ও হুগলি নদীর সংযোগস্থলে ওই দুই বোনের দেহ উদ্ধার করা হয়। খবর পাওয়া মাত্রই পরিবারের সদস্যরা কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। ইতিমধ্যে পুলিশ দেহ দু’টি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। ওই দুই কন্যার নাম আতিফা নাসরিন (৫) ও সিদ্রা তাসরিন (৭)। প্রসঙ্গত, ওই দুই কন্যার বাবা জাকির হোসেন সপরিবারে কলকাতার পঞ্চান্নগ্রামে বেড়াতে এসেছিলেন।

তারা ছত্তীসগঢ়ের বাসিন্দা। সেখান থেকে ওই ব্যক্তি তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পূর্ব মেদিনীপুরের একটি জায়গায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। রবিবার সন্ধেয় কুঁকড়াহাটি থেকে ভেসেলে ডায়মন্ড হারবার জেটি ঘাটের উদ্দেশে রওনা হলে জেটি ঘাটে পৌঁছান মাত্রই ঘটে বিপত্তি। ভেসেল যেখানে নোঙর করা হয় ওখানে আর একটি ভেসেল থাকায় ঘটে যায় দুর্ঘটনা। দুটি ভেসেলের মধ্যবর্তী ফাঁক থাকায় নামার সময় খেয়াল না করায় ওই দুই বোন ফাঁক দিয়ে গলে পড়ে যায় নদীতে। সঙ্গে সঙ্গে তারা তলিয়ে যায়। ওই দিন রাতেই দীর্ঘ সময় ধরে তল্লাশি চালালেও হদিশ মেলেনি তাদের।

সোমবার সকালে ফের তল্লাশি অভিযান শুরু হলেও দেহ পাওয়া যায় না। অবশেষে মঙ্গলবার দুপুরে পূর্ব মেদিনীপুরের সুতাহাটা এলাকায় হলদি ও হুগলি নদীর সংযোগস্থলে প্রথমে মৎস্যজীবীদের জালে আতিফা নাসরিনের দেহ পাওয়া যায়। মৎস্যজীবীদের তরফে ডায়মন্ড হারবার পুলিশে খবর দেওয়া হলে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। ওই নাবালিকার দেহ উদ্ধারের কিছুক্ষণের মধ্যে ওই স্থান থেকেই সিদ্রা তাসরিনের দেহ উদ্ধার করা হয়। প্রশাসন সূত্রে খবর, ওই দুই শিশুর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর ওই দুই শিশু কন্যার দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

মৎস্যজীবীদের জাল থেকে ডায়মন্ড হারবারে তলিয়ে যাওয়া শিশুদের দেহ উদ্ধার

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: