25 C
Kolkata
Thursday, December 1, 2022
বাড়িবিনোদনগায়ে ধুম জ্বর, বসার ক্ষমতা নেই, তাও মেলেনি ছুটি! হাসপাতালে ভর্তি মৈত্রেয়ী...

গায়ে ধুম জ্বর, বসার ক্ষমতা নেই, তাও মেলেনি ছুটি! হাসপাতালে ভর্তি মৈত্রেয়ী মিত্র

ছোটো পর্দার অন্যতম চেনা মুখ অভিনেত্রী মৈত্রেয়ী মিত্র (Maitreyi Mitra)। দীর্ঘ দুই দশক ধরে ছোটপর্দার নানা ধারাবাহিকে নানা চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এছাড়াও একাধিক শো সঞ্চালনায় দেখা গেছে তাঁকে। টেলিভিশন জগতের খুবই জনপ্রিয় মুখ তিনি। সম্প্রতি এক ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন অভিনেত্রী। যা শুনে রীতিমতো স্তম্ভিত নেটিজেনরা। নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে অভিনেত্রী জানান, গত ১০ অক্টোবর তিনি শ্যুটিংয়ে গিয়েছিলেন। গায়ে তুমুল জ্বর থাকার কারণে তাঁর বসে থাকার ক্ষমতা ছিল না। কিন্তু তা সত্ত্বেও কলটাইমে সেটে হাজির হয়েছিলেন তিনি।

অভিনেত্রী জানান, ‘কাদম্বিনী মরিয়া প্রমাণ করিল যে সে মরে নাই…সেই কবে রবি ঠাকুর লিখে গেছিলেন, আজও তার প্রতিফলন ঘটে চলেছে আমাদের জীবনে। ঘটনাটা আমার কাছে অনভিপ্রেত, দুঃখজনক এবং খানিকটা অভিমানের হলেও আজ আপনাদের একটু জানাতে ইচ্ছে হল। গত ১০ই অক্টোবর শ্যুটিংয়ে গিয়েছিলাম। প্রায় ঘন্টা আটেক পা ঝুলিয়ে বসে থাকার পর সোজা হয়ে দাঁড়াতেই পারছিলাম না। আমার একটা সমস্যা আছে যেটা কেতাদুরস্ত নাম হল গাউট, বাংলায় যাকে বলে গেঁটে বাত। ভাবলাম বুঝিবা তার জন্যই ব্যথা হচ্ছে। রাতে একটু জ্বর এল, প্যারাসিটামল খেয়ে নিজেকে সামলে নিয়ে পরদিন সকাল ১০টায় আমি শ্যুটিংয়ে হাজির।

আমার সকাল থেকে হাঁটার ক্ষমতা ছিল না প্রতিটা গাঁটে এত ব্যথা, কাউকে কিছু জানতে দিইনি। ধীরে ধীরে জ্বর বাড়তে লাগল। দাঁতে দাঁত চেপে বসে রইলাম। আমাকে রেডি করাতে এসে ওরা দেখল আমার গা পুড়ে যাচ্ছে, তখন আমার বসার ক্ষমতা টুকুও নেই।’ মৈত্রেয়ী আরও জানান, “মজার ব্যাপার, আমার গোটা ইউনিট বিষয়টি জানার পরেও আড়াই ঘণ্টা আমাকে বসে থাকতে হয়েছিল। এতটা সময় লেগেছিল আমাকে ছুটি দেওয়া হবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত নিতে। অনেকের মনে হয়েছিল আমার সঙ্গে অন্য কোনও কাজের যোগাযোগ হয়েছে। সেই কারণেই আমি সেট থেকে বেরনোর চেষ্টা করছিলাম।”

এই মুহূর্তে অভিনেত্রী মৈত্রেয়ী মিত্র অসুস্থতার কারণে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন

এই মুহূর্তে অভিনেত্রী মৈত্রেয়ী মিত্র অসুস্থতার কারণে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তিনি বলেন, “আজ অনেককে বলতে ইচ্ছে করছে, অভিনয় আমার কাছে পুজোর মতো। মিথ্যার আশ্রয় নেওয়ার জন্য অভিনয় করিনা। যদি কেউ এমনটা আগে করে থেকে, তাহলে তাঁর সঙ্গে সকলকে এক করে ফেলা সঠিক নয়। পরিশেষে ফিরে যাই সেই শুরুর কথায়, আর তার রেশ ধরে বলি আমি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে অন্তত কয়েকজন মানুষের কাছে প্রমাণ করতে পারলাম আমি সেদিন সত্যিই অসুস্থ ছিলাম, পর্দার অভিনয় জীবনের চলার পথে আমায় করতে হয়নি । তাদের জানানোর জন্যই এই পোস্ট।’

অভিনেত্রীর এই পোস্টটি দেখা মাত্রই ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন টলিপাড়ার অনেক অভিনেতা। তাঁর অনুরাগী সহ জয়জিত বন্দ্যোপাধ্যায়, ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়, ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়, অতনু ঘোষ, তুলিকা বসু ছাড়াও একাধিক ব্যক্তিত্ব অভিনেত্রীর দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন। বাচিকশিল্পী সুজয় প্রসাদ চট্টোপাধ্যায় বেজায় চটে গিয়ে বলেন, ‘এই ঘটনাটি ফোরামের জানা উচিৎ। মেডিক্যাল ইমারজেন্সিতে কেউ কাউকে এভাবে হয়রান করতে পারে না আর টাকা রোজগার করতে যাওয়া মানে নিজেদের বলিপ্রদত্ত করা নয় বা তাদের চৌহদ্দিতে বসে মোসাহেবী করা নয়।’

গায়ে ধুম জ্বর, বসার ক্ষমতা নেই, তাও মেলেনি ছুটি! হাসপাতালে ভর্তি মৈত্রেয়ী মিত্র

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: