25 C
Kolkata
Thursday, December 1, 2022
বাড়িরাজনীতি"বেশি লাফাবেন না, সময় খারাপ খুব" কীসের ইঙ্গিত করলেন দিলীপ ঘোষ?

“বেশি লাফাবেন না, সময় খারাপ খুব” কীসের ইঙ্গিত করলেন দিলীপ ঘোষ?

দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) মানেই যেন বিতর্ক। নানা কারণে তিনি প্রতিনিয়ত রাজ্যের শাসক দলকে আক্রমণ করেন। তার বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে উত্তাল হয় রাজ্য রাজনীতি। রবিবার ফের আরও একবার বিজেপির (BJP) সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করলেন। এদিন তিনি পঞ্চায়েত ভোটের (Panchayat election) সঙ্গে সাত পুরসভার ভোট প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, “রাজ্য সরকার কেন একসঙ্গে ১০০ পুরসভার ভোট করলেন না? কেন হাওড়ার পুরসভা ছেড়ে রেখেছেন? ওরা নিজেদের সুবিধা মতো ভোট করবেন, ভোট লুঠ করে জেতার চেষ্টা করবেন। তারপরে এই ধরনের নৈতিকতার কথা বলবেন! আপনাদের হিম্মত নেই ভোট করার। সব সময় চিন্তা যে হেরে যাব, হেরে যাব।

তাহলে তো এই সমস্যা হবেই। সরকারের সমস্যা। সরকারের অবশ্য কোনও কাজ নেই। দুয়ারে সরকার আর লক্ষ্মী ভাণ্ডার দিয়ে কাজ শেষ করে দিচ্ছেন। কিন্তু বাকি যে অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, সাধারণ মানুষ পরিষেবা পাচ্ছেন না। কারণ নির্বাচন।” উল্লেখ্য, শনিবার বীরভূমের রামপুরহাটের বিষ্ণুপুরে একটি জনসভায় দাঁড়িয়ে জেলবন্দি অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mandal) ‘বাঘ’ আখ্যা দিয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)। এদিন সেই প্রসঙ্গেই দিলীপ বাবু বলেন, “আমি ওনাকে মনে করিয়ে দেব দুতিন বছর আগে যারা গেছিলেন ভুবনেশ্বর সেই বাঘরা কোথায় আছেন! চিন্তা করুন। তাদের জিজ্ঞাসা করুন, কী অবস্থা হয়েছে, দাঁত আছে না গেছে? কালো চুল সাদা হয়ে গেল, দাঁত চলে গেল। কেউ কেউ উপরে চলে গেল। বেশি লাফাবেন না, সময় খারাপ খুব।”

দিলীপ বাবু সিউড়িতে বালিঘাটের দখল ঘিরে সংঘর্ষের জেরে রাজ্য সরকারকেই দায়ী করলেন

প্রসঙ্গত, এদিন দিলীপ বাবু সিউড়িতে বালিঘাটের দখল ঘিরে সংঘর্ষের জেরে রাজ্য সরকারকেই দায়ী করলেন। তিনি বলেন, “যত গণ্ডগোল হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে, যা কিছু আইনশৃঙ্খলার সমস্যা সব জায়গায় তৃণমূলের লোকেরা যুক্ত আছে। সমাজবিরোধী যা ছিল সমাজে, সব তৃণমূলের ঝান্ডা ধরে নেতা হয়ে গেছে। পঞ্চায়েত হয়ে গেছে, এমএলএ পর্যন্ত হয়ে গেছে। মন্ত্রীদের ডায়ালগ শুনুন, একজন সর্বভারতীয় নেতা মহামন্ত্রী বলছেন যে ১৩ তারিখে তিনি নাকি পুলিশ না থাকলে এইখানে গুলি করতেন। আর একজন কোচবিহার থেকে বলছেন দাড়ি ছিড়ে দেবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর। এই কথা যদি বলেন তাহসে শান্তির কথা বলছেন? আমাদের দায় পড়েছে শান্তি রাখার? আমাদের বাঁচার অধিকার আছে। আপনারা যে ভাষা বুঝতে পারবেন, সেই ভাষাতেই কথা বলব।”

“বেশি লাফাবেন না, সময় খারাপ খুব” কীসের ইঙ্গিত করলেন দিলীপ ঘোষ?

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: