25 C
Kolkata
Friday, February 3, 2023
বাড়িরাজনীতি"ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ সর্বভুক.." অভিষেককে কড়া ভাষায় আক্রমণ শুভেন্দুর

“ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ সর্বভুক..” অভিষেককে কড়া ভাষায় আক্রমণ শুভেন্দুর

শনিবার তৃণমূলের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) সংসদীয় এলাকা ডায়মন্ড হারবারের (Diamond Harbour) রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) সভা ছিল। আর তার সভার দিকে রাজনৈতিক মহলের সবার নজর ছিল। আজকের সভার মঞ্চ থেকে দুর্নীতি ইস্যুতে আরও একবার শাসক দলকে আক্রমণ করলেন শুভেন্দু অধিকারী। এদিনের সভার মঞ্চ থেকে তৃণমূলকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “কেন্দ্র একমাসে ১৯ হাজার কোটি টাক দিয়েছে… ডায়মন্ড হারবার, দক্ষিণ ২৪ পরগণাকে পৈতৃক জমিদারি বলে মনে করেছে। ভোট পরবর্তী হিংসায় ৫৬টি মামলা দায়ের করেছে সিবিআই। এই জেলার সোনারপুর, বারুইপুর, ফলতা, ডায়মন্ড হারবার মিলে ১০টি এফআইআর রয়েছে।

শুনে রাখুন, ২০২১ ভোটের পর এই জেলার বিভিন্ন অংশে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের ওপর যারা অত্যাচার করেছেন, মগরাহাটের বিজেপি প্রার্থী মানস সাহাকে খুন করেছেন, তাদের কাউকে ছাড়া হবে না। ধৈর্য ধরুন, আমার ওপর ভরসা রাখুন। সুদে-আসলে আদায় করা হবে। লক্ষ্মণ শেঠকে হারিয়েছি, সিপিআইএম এর সূর্য তখন মধ্য গগণে। তৃণমূল যখন ২১২টি আসন পেয়েছে, তখন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার কাছে নন্দীগ্রামে হেরেছেন।” এদিন তিনি আরও বলেন, “১০০ দিনের টাকা চুরিতে এক নম্বর দক্ষিণ ২৪ পরগণা, আবাস যোজনার বঞ্চনায় প্রথম স্থানে রয়েছে এই জেলা।

আমফানে মোদীজির দেওয়া টাকা কেউ পায়নি। এরা টাকা লুট করেছে। জেলার পরিষদ থেকেও টাকা লুট চলছে। এখানকার যিনি সাংসদ তিনি সর্বভুক। তিনি বালি খান, কয়লা খান, মদের বোতল খান, গোরু খান, স্কুলের ইউনিফর্মের টাকা খান। ৫০ হাজারের ওপর চাকরি তিনি বিক্রি করেছেন। দুর্নীতি করে কেউ পালাতে পারবেন না।” উল্লেখ্য, এদিনের সভায় নন্দীগ্রামের বিধায়ক ১০০ দিনের টাকা থেকে শুরু করে আমফানে কেন্দ্রের দেওয়া টাকা তৃণমূলের বিভিন্ন স্তরের নেতাদের মধ্যে ভাগ করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন। এমনকী ভোট পরবর্তী হিংসা সম্পর্কে তৃণমূল নেতাদের হুঁশিয়ার করেন শুভেন্দু অধিকারী।

“ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ সর্বভুক..” অভিষেককে কড়া ভাষায় আক্রমণ শুভেন্দুর

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: