25 C
Kolkata
Tuesday, November 29, 2022
বাড়িদেশ বিদেশটুইট করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

টুইট করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গর্বিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘London Whitechapel Station-এ’ বাংলা ভাষায় সাইনবোর্ড দেখে। টুইট করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি টুইট করে লিখলেন, এটি বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির জয়। তিনি আর কী লিখলেন টুইটে? এই নিয়ে কী বলছেন লন্ডনে বসবাসকারী বাংলা কমিউনিটি? কী মত বাংলা পক্ষর? জেনে নিন বিস্তারিত খবর.-বাংলায়।শুধুমাত্র বাঙালিকে সম্মান জানাতেই লন্ডনের হোয়াইটচ্যাপেল স্টেশনে বসেছে বাংলায় লেখা সাইনবোর্ড। সুদূর ইংল্যান্ডে জয়জয়কার বাঙলার।এবার এই নিয়ে টুইটে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছেন, ”আমি গর্বিত যে লন্ডন টিউব রেলের হোয়াইটচ্যাপেল স্টেশনের নাম বাংলায় লেখা হয়েছে এবং সেই স্টেশনে সংকেতের জন্য বাংলা ভাষাকে বেছে নেওয়া হয়েছে”। আর এই ভাষার ক্রমবর্ধমান গুরুত্ব আমাদের ঐতিহ্যের জয়। এই ঘটনা দেখে অভিন্ন সাংস্কৃতিক দিক নির্দেশনায় একসঙ্গে কাজ করা উচিত নানা দেশে বসবাসকারী প্রবাসীদের। এক হাজার বছরের পুরনো আমাদের বাংলাভাষা ।এটা আমাদের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের জয়।”পূর্ব লন্ডনের হোয়াইটচ্যাপেল স্টেশন অঞ্চল বলতে গেলে ছোটখাটো পশ্চিমবঙ্গ বা বাংলাদেশ। ইংল্যান্ডের থাকা ৭০ শতাংশ বাঙালিই থাকেন এই অঞ্চলে।

আচমকা গিয়ে পড়লে কলকাতা বা ঢাকা বলে ভ্রম হয়। শুধু স্টেশনের নামেই নয়, এই অঞ্চলের অনেক দোকানের নামেও রয়েছে বাংলা। সূত্রের খবর, লন্ডনে বসবাসকারী বাঙালিদের বহুদিনের দাবি মেনেই এই পরিবর্তন। প্রতিদিন ওই স্টেশন দিয়ে শুধু বাঙালি নন, যাতায়াত করেন প্রায় বিভিন্ন ভাষাভাষী, বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার মানুষ।গর্বিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘London Whitechapel Station-এ’ বাংলা ভাষায় সাইনবোর্ড দেখে। সেখানে আলাদা করে বাংলা ভাষায় সাইনবোর্ড, বাঙালি হিসেবে বিশেষ সম্মানের বলেই মনে করছেন সেখানকার বাংলা কমিউনিটি।লন্ডনকে বলা হয় বাঙালির দ্বিতীয় দেশ।এবার সেই লন্ডনে বাঙালিকে সম্মান দিয়ে সাইনবোর্ডে জায়গা পেল বাংলা ভাষা।

গর্বিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘London Whitechapel Station-এ’ বাংলা ভাষায় সাইনবোর্ড দেখে

ইংরাজির পাশাপাশি বাংলাতেও পড়া যাবে স্টেশনের নাম। রানির দেশেও বিশেষ সম্মান বাংলা ভাষার।এ প্রসঙ্গে বাংলা ভাষা নিয়ে বহুদিন ধরে কাজ করে আসা সংগঠন বাংলা পক্ষের সাধারণ সম্পাদক গর্গ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “বাংলায় যেখানে সবকিছু থেকে বাংলা সরিয়ে হিন্দি করে দেওয়া হচ্ছে, সেই প্রেক্ষিতে দাঁড়িয়ে লন্ডনে বাংলায় সাইনবোর্ড বাঙালির জন্য সুখানুভূতি তো বটে। লন্ডনে রেল স্টেশনে বাংলা সাইনবোর্ড বসছে আর এখানে রেলের টিকিটে বাংলা নয় হিন্দি লেখা থাকে । এই নিয়ে বাঙালির প্রতিবাদী হওয়া উচিত। Kolkata Metro-এর কার্ডেও বাংলা ছিল না, হিন্দি ছিল। বহু লড়াইয়ের পর এখন বাংলা হয়েছে।

টুইট করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: