25 C
Kolkata
Sunday, September 25, 2022
বাড়িরাজনীতিবিজেপির মিছিলে পুলিশের বাঁধা, লাঠি চার্জের জেরে মাথা ফাটল সমর্থকদের, পুলিশের গাড়িতে...

বিজেপির মিছিলে পুলিশের বাঁধা, লাঠি চার্জের জেরে মাথা ফাটল সমর্থকদের, পুলিশের গাড়িতে আগুন

নিয়োগ দুর্নীতি-সহ একাধিক ইস্যুতে সরকারের বিরুদ্ধে বঙ্গ বিজেপির (BJP) নেতারা মঙ্গলবার নবান্ন (Nabanna) অভিযানের ডাক দিয়েছিল। এদিন তিনটি পৃথক থান থেকে তিনটি পৃথক মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন সুকান্ত মজুমদার (Sukant Majumder), শুভেন্দু অধিকারী (Subhendu Adhikari) এবং দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তাঁদের আটকাতে কোমর বেঁধে তৈরি ছিল রাজ্য পুলিশ। জায়গায় জায়গায় ব্যারিকেড সহ প্রস্তত ছিল জলকামান, কাঁদানে গ্যাস। তুলুম অশান্তির আশঙ্কা করে আগে থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হয় একাধিক রাস্তা। কিন্তু এদিন মাঠে নামতে না নামতেই ক্লিন ‘বোল্ড’ হন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আজকের নবান্ন অভিযানে সাঁতরাগাছি থেকে মিছিলের নেতৃত্বে থাকার কথা ছিল শুভেন্দু অধিকারীর। আজ সকালে পিটিএস থেকে প্রচুর কর্মী সমর্থক সহ লকেট চট্টোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারী সাঁতরাগাছির দিকে যাচ্ছিলেন।

সেই সময় পুলিশ তাঁদের আটকে দেয়। পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে শুভেন্দুর বচসা শুরু হলে শেষ পর্যন্ত তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। সাঁতরাগাছি এলাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-কাচের বোতল ছোঁড়া হয়। বিজেপি কর্মীরা লাঠি-বাঁশ দিয়ে পুলিশকে আক্রমণ করার চেষ্টা করে। শুরু হয় লাঠি চার্জ। পুলিশের মারে চোট পান একাধিক বিজেপি কর্মী। বহু মানুষের মাথাও ফাটে। কলেজ স্কোয়ার থেকে মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কলেজ স্কোয়ার থেকে বিনা বাধায় মিছিল হাওড়া ব্রিজে পৌঁছালে, পুলিশ মিছিল আটকে দেয়। সেই বাঁধাকে অবজ্ঞা করে দিলীপ ঘোষ এবং বিজেপি নেতা-কর্মীরা নবান্নের দিকে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। আর সেই সময় জলকামান দিয়ে মিছিল ছত্রভঙ্গ করে পুলিশ। দুপুর ২টো ৪০ মিনিট নাগাদ দিলীপ ঘোষ ঘোষণা করেন, বিজেপির নবান্ন অভিযান শেষ। কিন্তু অভিযান শেষ তখনও হয়নি।

এমজি রোডে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা পুলিশের গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়

তখনও মাঠে লড়াই করছেন সুকান্ত মজুমদার। হাওড়া ময়দানের মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন সুকান্ত। বঙ্গবাসী মোড়ে তাদের সেই মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। প্রায় ৪৫ মিনিট বসে বিক্ষোভ করেন সুকান্ত-অগ্নিমিত্রারা। পুলিশের সঙ্গে বচসা বাঁধে তাদের। অন্যদিকে শুভেন্দু অধিকারীকে মুক্তির দাবিতে সাঁতরাগাছি স্টেশনের বাইরে বিক্ষোভে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। জ্বালানো হয় আগুন। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে ছাড়তে হবে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে। এই অশান্তির জেরে প্রবল সমস্যায় পড়েন সাধারণ যাত্রীরা। সাঁতরাগাছির পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হলে কলকাতা পুলিশ, রাজ্য পুলিশ, র‍্যাফ যৌথভাবে বিজেপি কর্মীদের প্রতিহত করার চেষ্টায় করেন। তাদের উদ্দেশ্যে ছোঁড়া হয় কাঁদানে গ্যাস। এমজি রোডে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা পুলিশের গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এই ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের ইঞ্জিন।

বিজেপির মিছিলে পুলিশের বাঁধা, লাঠি চার্জের জেরে মাথা ফাটল সমর্থকদের, পুলিশের গাড়িতে আগুন

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: