25 C
Kolkata
Wednesday, November 30, 2022
বাড়িবিনোদন"অনির্বাণ দা বিশ্বাসঘাতকা করেছেন। আমি প্রতারণার শিকার!" অভিনেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ

“অনির্বাণ দা বিশ্বাসঘাতকা করেছেন। আমি প্রতারণার শিকার!” অভিনেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ

টলিউডের (Tollywood) টল-ডার্ক-হ্যান্ডসাম হাঙ্ক অভিনেতাদের কথা বললেই সবার প্রথমে অনির্বাণ ভট্টাচার্যের (Anirban Bhattacharya) নামই উঠে আসে। অভিনয় জগতে তিনি একজন সফল অভিনেতা। সম্প্রতি তাঁর পরিচালনার কাজে হাতেখড়ি হয়েছে। সেখানে তিনি সফল হয়েছে। টলিউডের ব্যোমকেশ বক্সী অনির্বাণ ভট্টাচার্য ওয়েব সিরিজ পরিচালনার মাধ্যমে প্রমাণ করে দিয়েছে তিনি নাটকের পরিচালনায় তিনি যে ঠিক কতটা পারদশী। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনির্বাণের ফলোয়ার সংখ্যা প্রায় আকাশ ছোঁয়া। এই সফল অভিনেতা তথা পরিচালকের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন অনির্বাণ ভট্টাচার্যের সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার শ্রেয়া মিত্র, সাহানা রায় চৌধুরী, অবন্তী ভট্টাচার্য। গত চার বছর ধরে অনির্বাণের সোশ্যাল মিডিয়া পেজের দায়িত্ব সামলেছেন শ্রেয়া ও তাঁর টিম। তাদের অভিযোগ, এত দিন ধরে তারা ন্যূনতম সম্মান পাননি, অনির্বাণের সাথে চুক্তিবদ্ধ জনপ্রিয় এক প্রযোজনা সংস্থার দাদাগিরি সহ্য করতে হয়েছিল তাদের।

এই ঘটনার জেরে অভিনেতার  সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার শ্রেয়া জানান

এই ঘটনার জেরে অভিনেতার  সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার শ্রেয়া জানান, “আমি শুরু থেকেই অনির্বাণ দা র ভক্ত। আমার প্রিয় মানুষ অনির্বাণ। প্রথমে যে কেউ অনির্বাণদার পেজ দেখেছিল সে আমাকে অনির্বাণদার সাথে যোগাযোগ করেছিল। এরপর থেকে অনির্বাণদার পেজের কাজ শুরু করেন। আমি কাজ ভালোবাসতাম। প্রায় প্রতিদিনই নানা পরিকল্পনা নিয়ে কথা হতো। সেই সময় বিখ্যাত প্রযোজনা সংস্থা অনির্বাণদার পেজ নিয়ে খুব একটা আগ্রহ দেখায়নি। ফটোশুট করছি, নাটকের প্রচার চলছে, ভিডিও এডিটিং চলছে। এসব বিষয়ে আমি কখনো পারিশ্রমিক চাইনি বা পারিশ্রমিক দিইনি। ২০১৮ সালে পুজোর উদ্বোধন এবং অন্যান্য কাজেও আমাকে বলত, আপনি কিছু টাকা রাখুন। কিন্তু আমি এভাবে টাকা নিতে চাইনি। আমারও ট্যাক্স সংক্রান্ত সমস্যা আছে। অন্তত, মেইল ​​বা অন্যথায় প্রমাণ সহ টাকা নিতে চেয়েছিলেন। মানুষ হিসেবে অন্তত এতটুকু সম্মান আছে। আমি সেই সম্মান চাই।” উল্লেখ্য, শ্রেয়া এই গোটা ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে জানিয়েছিলেন।

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর অভিনেতার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়া ছিঃ ছিক্কারে ভরে গেছে

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর অভিনেতার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়া ছিঃ ছিক্কারে ভরে গেছে। ওই যুবতি তাঁর পোস্টের মাধ্যমে জানিয়ে দিয়েছেন যে, শ্রেয়া ও তাঁর টিম জানিয়েছেন এখন থেকে তাঁরা আর অনির্বাণের পেজ সামলাচ্ছেন না। শ্রেয়া আরও জানান যে, “আমি প্রথম থেকেই অনির্বাণ দা র ফ্যান। আমার ভীষণই পছন্দের মানুষ অনির্বাণ দা। প্রথমদিকে যিনি অনির্বাণদার পেজটা দেখতেন, সেই আমাকে অনির্বাণদার সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দেন। তারপর থেকেই অনির্বাণদার পেজের হয়ে কাজ করা শুরু। খুব ভালবেসেই কাজটা করতাম। প্রায় রোজই কথা হত নানা প্ল্যানিং নিয়ে। সেই সময় নামী প্রযোজনা সংস্থা অনির্বাণদার পেজ নিয়ে খুব একটা আগ্রহ দেখায়নি। আমিই ফটোশুট করাচ্ছি, নাটকের প্রোমোশন চলছে, ভিডিও এডিট চলছে। এসব বিষয়ে আমি কোনওদিনই পারিশ্রমিক চাইনি, পারিশ্রমিক দেয়নি। ২০১৮ সালে পুজো উদ্বোধন এবং এছাড়াও অন্য কাজ হলে আমাকে বলত, তুমি কিছুটা টাকা রেখে দাও। কিন্তু আমি এভাবে টাকা নিতে চাইতাম না। আমারও তো ট্যাক্সের ব্যাপার রয়েছে। অন্তত, মেইল বা অন্যভাবে প্রমাণ রেখেই টাকা নিতে চেয়েছি। মানুষ হিসেবে অন্তত এতটুকু সম্মান তো রয়েছে। সেই সম্মানটাই চাই আমি।”

অভিনেতার এমন ব্যাবহার তারা প্রত্যাশা করেননি

উল্লেখ্য, শ্রেয়া জানিয়েছেন, “মূলত সেই বিখ্যাত প্রযোজনা সংস্থার নিপীড়ন থেকেই সমস্যার শুরু। আমরা আমাদের নিজস্ব সেটআপে কাজ করি। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পদের জন্য তারা দিনের পর দিন সেখানে দাঁড়িয়ে থাকতে বাধ্য হন। আমার শুধুমাত্র একটি প্রশ্ন আছে, আমি স্বাধীনভাবে কাজ করি, আমি চুক্তির অধীনে নই। তাহলে কেন এই মানসিক চাপ? এ মামলায় আমাকে কোনো টাকা দেওয়া হয়নি! আমি অনির্বাণ দা কেও বলেছিলাম, কিন্তু আমি সমস্যার সমাধান করার আগেই অনির্বান্দা আমার সাথে কথা বলা বন্ধ করে দিল। ব্লক আমাকে এমনকি, অনির্বান্দর ম্যানেজার আমাকে বলেছেন যে আমার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অনির্বাণদারের সাথে যোগাযোগ করতে পারছি না। তারপর হঠাৎ দেখি পেজটি হ্যাক করে ওই পেজে পোস্ট করা হয়েছে। এই আচরণে আমি হতবাক। আমি আলোচনা করতে চেয়েছিলাম। খুব অপমানিত লাগছে। পুরো ঘটনায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত।” সূত্রের খবর, এই ঘটনার পর  অনির্বাণ একেবারে নিসচুপ। সূত্রের খবর, তাদের কোনও রকম কথা না বলে তাদেরকে ব্লক করে দিয়েছেন অনির্বাণ। অভিনেতার এমন ব্যাবহার তারা প্রত্যাশা করেননি।

“অনির্বাণ দা বিশ্বাসঘাতকা করেছেন। আমি প্রতারণার শিকার!” অভিনেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: