25 C
Kolkata
Thursday, December 1, 2022
বাড়িখেলাঅন্যান্যদুই বছর পর দক্ষিণেশ্বর মন্দির চত্বরে ফিরল পুরনো চেহারা, বহু মানুষের সমাগম

দুই বছর পর দক্ষিণেশ্বর মন্দির চত্বরে ফিরল পুরনো চেহারা, বহু মানুষের সমাগম

বিগত দুই বছর পর ফের এই বছর দর্শনার্থীরা কালীপুজোর রাতে দক্ষিণেশ্বর মন্দির (Dakshineshwar temple) চত্বরে বসে পুজো দেখার সুযোগ পাবেন। গত দুই বছর করোনা মহামারির জন্য দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে কালী পুজোতে (Kali Puja) বেশ কিছু নিয়মের পরিবর্তন এসেছিল। দূরত্ববিধি সহ করোনার সমস্ত নিয়ম কোঠর ভাবে পালন করা হত। কিন্তু এই বছর করোনা পরিস্থিতি উন্নত হওয়ার কারণে করোনা পূর্ববর্তী অন্যান্য বছরে কালী পুজোর দিন যে নিয়ম মেনে দক্ষিণেশ্বর কালী মন্দিরে পুজো দেখা যেত সেই নিয়ম ফিরে এল। দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের পুজোর এই বছর ১৬৮তম বছরে পদার্পণ করল। আজ মা ভবতারিণীকে সাবেকী সোনার গয়নাতেই সাজানো হবে।

সাবেকিয়ানা মতে মাকে পরানো হবে বেনারসি শাড়ি। সোমবার ভোর ৫টা থেকে ভক্ত ও দর্শনার্থীদের উদ্দেশ্যে মন্দিরের সিংহদুয়ার খুলে দেওয়া হবে। আজ সারা রাত ধরে চলবে নিশি পুজো। সোমবার রাতে গঙ্গায় বান চলে যাওয়ার পরে প্রথা মেনে মন্দিরের চাঁদনি ঘাটে পুজোর ঘটে জল ভরতে যাওয়া হবে। প্রতি বছরের মতো এই বছরও জল ভরতে যাওয়ার সময়ে গঙ্গায় অর্ধচন্দ্রাকৃতি নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করা হবে। বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ও রিভার ট্র্যাফিক পুলিশের কর্মীরা গঙ্গায় অর্ধচন্দ্রাকৃতি নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করবেন। এই কারণে বিশেষ আলোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ঘটে জল ভরার পরে সাধারণের জন্য গঙ্গার ঘাটে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে।

ই বছর পর দক্ষিণেশ্বর মন্দির চত্বরে পুরনো ছবি ফিরল

আজ রাত ১০.৩০ মিনিট থেকে শুরু হবে পুজো। চার প্রহরে মা ভবতারিণীর পুজোর আয়োজন করা হবে। অন্ন, পাঁচ রকম মাছ, পাঁচ রকম আনাজ ভাজা, ঘি-ভাত, পাঁচ রকম মিষ্টি ও দই সহযোগে মা ভবতারিণীকে ভোগ নিবেদন করা হবে। পূর্বের বছরগুলির ন্যায় এই বছরও বাহারি আলোর মালায় মূল মন্দির-সহ গোটা চত্বর সাজিয়ে তোলা হয়েছে। দুই বছর পর দক্ষিণেশ্বর মন্দির চত্বরে পুরনো ছবি ফিরল। আজ ভোর থেকেই মন্দির চত্বরের বাইরের অংশের চাতাল থেকে বালি ব্রিজ পর্যন্ত সর্বত্র ভক্তদের ঢল নেমেছে। কালী পুজো উপলক্ষে গঙ্গার ঘাট থেকে শুরু করে নাট মন্দির ও চাতাল সর্বত্র লক্ষ ভক্তের সমাগম হয়েছে।

এই বছর দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের চাতালে একসঙ্গে প্রায় কয়েক হাজার মানুষকে দাঁড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে

এই বছর দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের চাতালে একসঙ্গে প্রায় কয়েক হাজার মানুষকে দাঁড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আবহাওয়া জনিত সতর্কতার কারণে গঙ্গার ঘাটে দাঁড়ানো বা বসা নিষিদ্ধ। দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের অছি ও সম্পাদক কুশল চৌধুরী বলেছেন, “করোনা পূর্ববর্তী সময়ে যে সব নিয়ম মেনে মন্দির খোলা থাকত, এখনও সেটা বজায় রাখা হচ্ছে। গোটা দেশের মানুষের আবেগ জড়িয়ে আছে এই মন্দিরের সঙ্গে। তাই কালীপুজোর রাতে কাউকেই পুজো দেওয়া থেকে বিরত বা বঞ্চিত করা হবে না। তবে সব বিধি মেনেই সব কাজ করা হচ্ছে।” উল্লেখ্য, এই বছরও হাতে হাতে প্রসাদ বিতরণ বন্ধ থাকছে।

দুই বছর পর দক্ষিণেশ্বর মন্দির চত্বরে ফিরল পুরনো চেহারা, বহু মানুষের সমাগম

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: