25 C
Kolkata
Tuesday, November 29, 2022
বাড়িরাজ্যকলকাতাকন্যাসন্তান জন্মের পর হাসপাতালের পরিত্যক্ত জায়গা থেকে প্রসূতির দেহ উদ্ধার

কন্যাসন্তান জন্মের পর হাসপাতালের পরিত্যক্ত জায়গা থেকে প্রসূতির দেহ উদ্ধার

ফের সরকারি হাসপাতালে রোগীর নিরাপত্তা নিয়ে উঠল একাধিক প্রশ্ন। কলকাতা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ (Calcutta National Medical College) হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগের পেছন থেকে এক মহিলার মৃত দেহ উদ্ধার হল। জানা গিয়েছে, তিনি সন্দেশখালির বাসিন্দা। ওই মৃত মহিলার নাম আছিয়া বিবি। গত ২৬ অক্টোবর তিনি কলকাতা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। তার পরের দিনই তিনি একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। রবিবার দুপুর থেকে তিনি নিখোঁজ হয়ে যান।

আর তারপরই সোমবার সকাল ১০.৩০ মিনিট নাগাদ কলকাতা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগের বিল্ডিংয়ের পিছনে পরিত্যক্ত জায়গায় তার দেহ পাওয়া যায়। প্রায় কুড়ি ঘণ্টা পরে হাসপাতাল চত্বর থেকে তার দেহ উদ্ধারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাসপাতাল চত্বরে হইচই পড়ে যায়। প্রশ্ন ওঠে হাসপাতালের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে। ইতিমধ্যে এই ঘটনার জেরে স্বাস্থ্য ভবনের তরফে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওই মহিলার মৃত্যুর পর তার পরিবারের সদস্যরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাফিলতির অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। বেনিয়াপুকুর থানা এবং লালাবাজার থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সোমবার রাত পর্যন্ত পুলিশের কাছে লিখিত কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি। এই ঘটনার পর মৃতা মহিলার জামাইবাবু ইউনিস আলি মোল্লার অভিযোগ, ‘‘রবিবার দুপুর থেকে ওঁকে কোথাও খুঁজে পাচ্ছিলাম না। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে বারবার অনুরোধ করায় আমাদের বলা হয়েছিল, রোগীকে নিয়ে চিন্তার কিছু নেই। নিজেরাই খুঁজে নিন!’’ মৃতার পরিবারের লোকের অভিযোগ, ‘‘বিল্ডিংয়ের পিছনে ফাঁকা জায়গায় নর্দমার পাশে মাসিকে উপুড় হয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। মাথা থেকে রক্ত বেরোচ্ছিল। হাত দু’টি পিছনে ছিল। হাত ও গলার কাছে ক্ষতচিহ্ন দেখে মনে হয়েছে, ইঁদুর বা বিড়ালে দেহ খুবলেছে।’’

কন্যাসন্তান জন্মের পর হাসপাতালের পরিত্যক্ত জায়গা থেকে প্রসূতির দেহ উদ্ধার

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: