25 C
Kolkata
Sunday, December 4, 2022
বাড়িরাজ্যকলকাতাভোট প্রচারে বেরিয়ে হেনস্থার শিকার মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়

ভোট প্রচারে বেরিয়ে হেনস্থার শিকার মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়

নিজস্ব সংবাদদাতা, অর্পিতা মন্ডল- ভোটের প্রচারে বেরিয়ে হেনস্থার শিকার হতে হল সিপিএমের প্রার্থী মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায় কে। নন্দীগ্রাম থেকে তিনি দুই হেভিওয়েট প্রার্থীর বিরুদ্ধে লড়ছেন। তৃণমূলের হুমকি ও হেনস্থার মুখে পড়তে হয়েছে বলে অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি।

সিপিএমের যুব নেত্রী মীনাক্ষী টোটোয় চেপে নন্দীগ্রামের দুই ব্লকের গ্রামে গ্রামে ঘুড়ে প্রচার করছেন। সিপিএমের অভিযোগ, শনিবার দাউদপুরে তৃণমূলের বাধা ও হুমকির মুখে পড়েন মীনাক্ষী। ওই এলাকায় সিপিএম প্রার্থী প্রচার করলে তৃণমূলের অসুবিধা হবে বলে জানিয়ে মীনাক্ষীকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয় ‘মারাত্মক পরিস্থিতি’র।

আর তারই প্রতীবাদে রাস্তা অবরোধে বসলেন মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়। অভিযোগ জানানো হল নির্বাচন কমিশনের কাছেও। থানায় বিক্ষোভ এবং রাস্তা অবরোধে দলীয় প্রার্থীর সঙ্গে শামিল হয়েছিলেন গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতির রাজ্য সম্পাদক কনীনিকা বসু ঘোষ এবং সিপিএমের পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সম্পাদক নিরঞ্জন সিহি। তারই পাশাপাশি, বাম ছাত্র ও যুব সংগঠনের সাম্প্রতিক নবান্ন অভিযানে গিয়ে পুলিশের মারে আহত ও মৃত ডিওয়াইএফআই কর্মী মইদুল ইসলাম মিদ্যার মা তহমিনা বিবি নন্দীগ্রামের মানুষের কাছে আবেদন করলেন মীনাক্ষীকে জেতানোর জন্য।

মইদুলের মা তহমিনা দেবী বলেন, ‘‘কাজের জন্য আন্দোলন করতে গিয়ে আমার ছেলে প্রাণ দিয়েছে। আমার মেয়ে মীনাক্ষী ভোটে দাঁড়িয়েছে সকলের জন্য কাজের দাবিতে। মেয়েটা জিতলে আমার ছেলের মৃত্যুর বিচার পাওয়া যাবে।নন্দীগ্রামে অন্য দুজন প্রার্থী আছেন, তাঁরা অনেক মিথ্যা কথা বলছেন। ওঁদের কথায় বিশ্বাস করবেন না!’’

ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবি তুলে রবিবার নন্দীগ্রাম থেকে টেঙ্গুয়া যাওয়ার রাস্তায় অবরোধে বসেন মীনাক্ষী-সহ সংযুক্ত মোর্চার কর্মী সমর্থকেরা। মীনাক্ষী বলেন, ‘‘পুলিশ এবং কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকা সত্ত্বেও এক জন প্রার্থীকে হেনস্থা করা হচ্ছে। প্রচার তো সবাই করতে পারে। ঘটনার পরে কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। বোঝা যাচ্ছে, কোনও বাহিনী বা প্রশাসন কোনও কাজ করছে না।’’

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: