25 C
Kolkata
Sunday, February 5, 2023
বাড়িরাজ্যকলকাতাদিলীপ ঘোষের 'রগড়ে দেওয়া'র মন্তব্যে ক্ষোভ প্রকাশ টলিউডের একাংশের

দিলীপ ঘোষের ‘রগড়ে দেওয়া’র মন্তব্যে ক্ষোভ প্রকাশ টলিউডের একাংশের

নিজস্ব সংবাদদাতা,অর্পিতা মন্ডল- টলিউডের কয়েকজন শিল্পীর তৈরি ‘নিজেদের মতে, নিজেদের গান’ নামক একটি মিউজিক ভিডিও কে ঘিরে ফের বিতর্কিত মন্তব্য দিলীপ ঘোষের। সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শিল্পীদের ‘রগড়ে দেওয়ার’ কথা বলেছিলেন বিজেপির এই রাজ্য সভাপতি।

মূলত ফ্যাসিবাদ এবং ধর্মের রাজনীতির বিরোধিতা করেই লেখা হয়েছিল সেই গান। সেই গানে যাঁদের দেখা গিয়েছে, তাঁরা প্রত্যেকেই পরিচিত বিজেপি বিরোধী হিসেবে। বাংলা সংস্কৃতি জগতের একাধিক খ্যাতিনামা শিল্পীদের দেখাগেছে এই ভিডিওতে। সে পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, কৌশিক সেন, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, সব্যসাচী চক্রবর্তী, ঋদ্ধিমান সেন থেকে শুরু অনুপম রায়, অনিন্দ্য চ্যাটার্জি প্রায় কেউই বাদ যাননি।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে যখন টলিউডের একাধিক শিল্পী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলে নাম লিখিয়েছেন, কিন্তু অঙ্কুশ নিজের গায়ে রাজনীতির রং লাগতে দেননি। তবে রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে নিজের মন্তব্য প্রকাশ করতে কখনওই পিছপা হননি তিনি। তাই দিলীপের এই ‘রগড়ে দেওয়ার’ কথায় আপত্তি জানিয়েছেন তিনিও। দিলীপের নাম না নিয়েই তাঁকে কটাক্ষ করে ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট করেছেন অঙ্কুশ। তিনি লিখেছেন, “ইশ সব জায়গাতেই যদি একটু শিক্ষাগত যোগ্যতা দেখে লোক নেওয়া হতো, তা হলে যে কেউ শিল্পীদের রগড়ে দিয়ে যেত না।”

শুধু অঙ্কুশ নন, বিজেপির সদস্য রূপাঞ্জনা মিত্রও সমর্থন করতে পারেননি দলনেতার এই মন্তব্য। অভিনেত্রীর কথায়, “দিলীপবাবুকে আমি শ্রদ্ধা করি। কিন্তু তাঁর এই মন্তব্য সমর্থন করতে পারিনি। এখন রাজ্য রাজনীতিতে টলিউডের শিল্পীদের প্রসঙ্গ এনে শাসক বা বিরোধী পক্ষ যে ধরনের শব্দ ব্যবহার করছে, সেগুলো একেবারেই ভাল লাগছে না।” দলের আরও এক সদস্য কৌশিক রায়ের গলায় যদিও উল্টো সুর। তাঁর কথায়, “দিলীপবাবু কোন প্রসঙ্গে কী বলেছেন সেটা আমি জানি না। তবে যে দলে এতজন তারকা প্রার্থী, সাংসদ রয়েছেন সেই দলের নেতা শিল্পীদের নিয়ে কোনও কুমন্তব্য করবেন বলে আমি মনে করি না। ওঁর বক্তব্যকে কোনও ভাবে ঘুরিয়ে দেখানো হচ্ছে বলে আমার মনে হয়।”

‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকের সুবাদে এই মুহূর্তে জনপ্রিয়তার শিখরে তিনি। পর্দার ‘সৌজন্য’ বাস্তবেও সৌজন্য বজায় রাখায় বিশ্বাসী। তাঁর কথায়, “অন্য কোনও পেশা থেকে কেউ যদি ধারাবাহিকে অভিনয় করতে আসেন, আমরা কিন্তু তাঁকে রগড়ে দেব না। বরং সাহায্য করব”।

পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় নেট মাধ্যমে নিজের অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, বিজেপিতে যে সব শিল্পীরা যোগদান করেছেন, তাঁদের ক্ষেত্রেও দিলীপের এই ‘রগড়ানি’ প্রযোজ্য কি না। অভিনেতার মতে, শিল্পীরা বিজেপির হয়ে কথা বললেই তাঁদের আর কোনও রকম সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে না।

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

%d bloggers like this: